Logo
শিরোনাম :
উখিয়ায় সমাজ কল্যাণ ও উন্নয়ন সংস্থা (স্কাস)’র কমিউনিটি রিসোর্স সেন্টার উদ্বোধন জাহাঙ্গীর কবির চৌধুরীর সর্মথনে এক নির্বাচনী মত বিনিময় সভা অনুষ্ঠিত ৬ রোহিঙ্গা হত্যার ঘটনায় ১০ জন আটক রোহিঙ্গা ক্যাম্পে ৬ খুনের ঘটনায় থানায় মামলা বিএফইউজের নেতৃত্বে ফারুক-দীপ, সর্বোচ্চ ভোটে সদস্য হলেন দেশ রূপান্তরের সুইটি রোহিঙ্গা নেতা মহিবুল্লাহ হত্যায় সরাসরি অংশ নিয়েছে আজিজুল চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী জামী চৌধুরীর ব্যাপক গণসংযোগ মুহিবুল্লাহ হত্যার কিলিং স্কোয়াডের সদস্য আজিজুল আটক রোহিঙ্গা নেতা মাস্টার মহিবুল্লাহ ‘কিলিং স্কোয়াড’ সদস্য গ্রেফতার, দুপুরে সংবাদ সম্মেলন পালংখালীর ৬নং ওয়ার্ডে ইউপি সদস্য পদে কামাল উদ্দিনকে নির্বাচিত করতে ভোটারদের গণজোয়ার
নোটিশ :

আমাদের ভুবনে আপনাকে স্বগতম>>তথ্য নির্ভর সংবাদ পেতে  সাথে থাকুন  ধন্যবাদ।

রোহিঙ্গা ক্যাম্পে এনজিও কর্মীদের ছাঁটাই, বাড়ছে ক্ষোভ

রিপোর্টার : / ১৮৯ বার
আপডেট সময় : শুক্রবার, ২৪ সেপ্টেম্বর, ২০২১

এইচ এম ফরিদুল আলম

কক্সবাজারের উখিয়া-টেকনাফ উপজেলায় রোহিঙ্গা ক্যাম্পগুলোতে থেকে দেশি-বিদেশি এনজিও থেকে স্থানীয় কর্মীদের ছাঁটাইয়ের হিড়িক পড়েছে। অথচ অন্যান্য জেলা থেকে এসে দিব্যি কাজ করছেন বহু কর্মী। ফলে ভুক্তভোগীদের মাঝে বাড়ছে ক্ষোভ ও ঘৃণা।
ভুক্তভোগীদের অভিযোগ- উদ্দেশ্য প্রণোদিতভাবে স্থানীয় কর্মীদের গণহারে ছাঁটাই করছে রোহিঙ্গা ক্যাম্পভিত্তিক বিভিন্ন এনজিও। প্রকল্পের মেয়াদ শেষ, বাজেট না থাকাসহ নানা অজুহাতে গত এক বছরে প্রায় ১২ হাজার কর্মীর চাকরি চলে গেছে বলেও জানান তারা।

কক্সবাজার শহরের সিকদার পাড়ার নাছির উদ্দিন বলেন, কক্সবাজার সরকারি কলেজ থেকে অনার্স-মাস্টার্স পাস করে ২০১৮ সালের শুরুর দিকে একটি আন্তর্জাতিক এনজিওতে চাকরি নেই। কর্মক্ষেত্র ছিল রোহিঙ্গা ক্যাম্প। সবকিছু ভালোই চলছিল। ২০২০ সালের শেষদিকে ওই এনজিওর শীর্ষ কর্মকর্তার নির্দেশে মাঠ পর্যায়েও কাজ করেছি। তবু শেষ রক্ষা হয়নি। পাঁচ মাস আগে আমাকে চাকরি থেকে বাদ দেওয়া হয়। এরপর থেকে বাড়িতে বেকার বসে আছি।

শহরের পাহাড়তলীর রোজিনা আক্তার বলেন, কক্সবাজার মহিলা কলেজ থেকে ডিগ্রি পাস করে তিন বছর আগে একটি স্থানীয় এনজিওতে চাকরি পাই। আমার বেতনের টাকায় পরিবারে কিছুটা সচ্ছলতা ফেরে। তবে চলতি বছরের ফেব্রুয়ারিতে প্রকল্পের মেয়াদ শেষ হওয়ার অজুহাতে আমাকে কাজে যোগদান করতে দেওয়া হয়নি। আমরা একসঙ্গে ১০ জন জরিপ এবং হেলথ সেক্টরে কাজ করতাম। এখন ছয়জনের চাকরি নাই।

কলিম উল্লাহ নামে চাকরিচ্যুত আরেকজন বলেন, গত এক বছরে ১২ হাজার স্থানীয় কর্মীকে বিভিন্ন এনজিও থেকে থেকে ছাঁটাই করা হয়েছে। তারা রোহিঙ্গা ক্যাম্পগুলোতে কর্মরত ছিলেন।

এনজিও হোপ ফাউন্ডেশনের কান্ট্রি ডিরেক্টর জাহিদুজ্জামান বলেন, এ ধরনের অভিযোগ সত্য নয়। যোগ্যতার ভিত্তিতেই সবাইকে কর্মক্ষেত্রে রাখা হচ্ছে। আবার অনেকে বিভিন্ন স্বল্পমেয়াদী প্রকল্পে কাজ করেন। সেসব প্রকল্পের মেয়াদ শেষ হলে কর্মীদেরও রাখা হয় না। এক্ষেত্রে স্থানীয় ও বহিরাগতদের মধ্যে কোনো বৈষম্য নেই।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর