Logo
নোটিশ :

আমাদের ভুবনে আপনাকে স্বগতম>>তথ্য নির্ভর সংবাদ পেতে  সাথে থাকুন  ধন্যবাদ।

পরীমনিকে ধর্ষণ ও হত্যাচেষ্টায় ঘটনায়  নাছিরসহ ৫জন আটক

রিপোর্টার : / ৯৭ বার
আপডেট সময় : সোমবার, ১৪ জুন, ২০২১

উখিয়া কন্ঠ ডেস্ক।। নায়িকা পরীমনিকে ধর্ষণ ও হত্যাচেষ্টার ঘটনায় দায়ের করা মামলার প্রধান আসামী ব্যবসায়ী নাসির ইউ মাহমুদ সহ পাঁচজনকে আটক করা হয়েছে। ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)  ও ঢাকা জেলা পুলিশের যৌথ অভিযানে তারা গ্রেপ্তার করা হয় বলে ডিএমপির যুগ্ন কমিশনার হারুন উর রশীদ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

সোমবার (১৪ জুন) দুপুর ২ টায় আবাসন ব্যবসায়ী নাসির ইউ মাহমুদকে উত্তরার সেক্টর-১ এর ১২ নম্বর রোডস্থ নিজস্ব বাসা (১৩ নং) থেকে গ্রেপ্তার করা হয়। গ্রেপ্তার পাঁচজন হলেন—নাসির ইউ মাহমুদ, অমি, লিপি, সুমি ও স্নিগ্ধা।

এদের মধ্যে দুইজন এজহার নামীয় আসামি ও তিন নারী ডিজেতে অংশ নিতে আসা। সেই বাসা থেকে ইয়াবা, বিদেশি মদও উদ্ধার করা হয়। অভিযানে নেতৃত্ব দেন ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের ডিএমপির যুগ্ম কমিশনার হারুন উর রশীদ, উপ-কমিশনার (ডিসি) মশিউর রহমান ও ঢাকা জেলা পুলিশের সাভার সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ ‍সুপার আব্দুল্লাহিল কাফী।

উল্লেখ্য, সোমবার (১৪ জুন) দুপুরের দিকে আবাসন ব্যবসায়ী নাসির ইউ মাহমুদকে প্রধান আসামি করে ঢাকার সাভার মডেল থানায় ৬ জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন নায়িকা পরীমনি। ওই মামলায় ব্যবসায়ী ‘নাসির ইউ মাহমুদ’ এবং বাসা থেকে পরীমণিকে সঙ্গে করে ক্লাবে নিয়ে যাওয়া বন্ধু ‘অমি’ এর নাম উল্লেখ করা হয়েছে। এছাড়া আরও ৪ জনকে অজ্ঞাতনামা আসামি হিসেবে উল্লেখ করা হয়েছে।এর আগে, রোববার (১৩ জুন) রাত আনুমানিক সাড়ে ১০টার দিকে রাজধানীর বনানীর নিজ বাসায় সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে ধর্ষণচেষ্টার বিস্তারিত জানান ঢালিউড নায়িকা পরীমণি। তুলে ধরেন তার সঙ্গে ঘটে যাওয়া অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনার বিবরণ। ঘটনার বর্ণনা দিয়ে তিনি জানান, গত বুধবার (৯ জুন) রাতে পারিবারিক বন্ধু অমি ও পরীর পোশাক ডিজাইনার জিমির সঙ্গে বাইরে বের হয়েছিলেন। রাত ১২টার দিকে অমি তাদের নিয়ে ঢাকা বোট ক্লাবে যান। সেখানে মদ পানরত কয়েকজন ব্যক্তির সঙ্গে পরীর পরিচয় করিয়ে দেন অমি। পরে অমি সেখানে থাকা নাছির ইউ মাহমুদ নামে এক ব্যক্তির কাছে নিয়ে যায়। সে সময় নাছির ইউ মাহমুদ নিজেকে ঢাকা বোট ক্লাবের সভাপতি হিসেবে পরিচয় দেন। সেখানে নাছির ইউ মাহমুদ আমাকে মদ খেতে অফার করেন। আমি রাজি না হলে আমাকে জোর করে মদ খাওয়ানোর চেষ্টা করেন। একপর্যায়ে আমাকে চড় থাপ্পড় মারেন। তারপর ধর্ষণ চেষ্টার পাশাপাশি হত্যার চেষ্টা করেন।গ্রেপ্তার নাছির ইউ মাহমুদ ২০১৪ সালে এবং ২০১৫ সালে উত্তরা ক্লাবের সভাপতি পদে দায়িত্ব পালন করেছেন শিল্পপতি নাসির ইউ মাহমুদ। পেশায় তিনি আবাসন ব্যবসায়ী। তিনি ঢাকা বোট ক্লাবের বর্তমান কার্যনির্বাহী কমিটির সঙ্গেও যুক্ত রয়েছেন। নিজস্ব আবাসন প্রকল্প ‘কুঞ্জ ডেভলপারর্স লি.’ এর চেয়ারম্যান নাসির ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পড়াশোনা করেছেন। ওই সময়ে তিনি বিশ্ববিদ্যালয়ের সলিমুল্লাহ মুসলিম হলের (এসএম হল) নির্বাচিত সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করেছেন।তার স্ত্রী জীবিত রয়েছেন। তাদের সংসারে দুটি ছেলে সন্তান রয়েছে। বড় ছেলে একই আবাসন প্রকল্পের ম্যানেজিং ডাইরেক্টর।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর