Logo
শিরোনাম :
উখিয়ায় ২জন চেয়ারম্যান প্রার্থীসহ ১৪জনের মনোনয়ন প্রত্যাহার ক্লাইমেট চেন্জে বিশ্বের সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত দেশ বাংলাদেশ : স্কাস চেয়ারম্যান জেসমিন প্রেমা উখিয়ায় ৬ খুনের ঘটনায় গ্রেফতার ৪ উখিয়ায় সমাজ কল্যাণ ও উন্নয়ন সংস্থা (স্কাস)’র কমিউনিটি রিসোর্স সেন্টার উদ্বোধন জাহাঙ্গীর কবির চৌধুরীর সর্মথনে এক নির্বাচনী মত বিনিময় সভা অনুষ্ঠিত ৬ রোহিঙ্গা হত্যার ঘটনায় ১০ জন আটক রোহিঙ্গা ক্যাম্পে ৬ খুনের ঘটনায় থানায় মামলা বিএফইউজের নেতৃত্বে ফারুক-দীপ, সর্বোচ্চ ভোটে সদস্য হলেন দেশ রূপান্তরের সুইটি রোহিঙ্গা নেতা মহিবুল্লাহ হত্যায় সরাসরি অংশ নিয়েছে আজিজুল চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী জামী চৌধুরীর ব্যাপক গণসংযোগ
নোটিশ :

আমাদের ভুবনে আপনাকে স্বগতম>>তথ্য নির্ভর সংবাদ পেতে  সাথে থাকুন  ধন্যবাদ।

পুলিশ-বিএনপি ব্যাপক সংঘর্ষ

ডেস্ক রিপোট।। / ৩২০ বার
আপডেট সময় : শনিবার, ১৩ ফেব্রুয়ারী, ২০২১

রাজধানীতে বিএনপির সমাবেশে পুলিশের সঙ্গে নেতা-কর্মীদের ব্যাপক সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এতে বেশ কয়েকজন আহত হয়েছেন বলে খবর পাওয়া গেছে।

শনিবার (১৩ ফেব্রুয়ারি) দুপুর ১২টার দিকে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে এই সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। ধাওয়া, পাল্টা-ধাওয়ায় উত্তপ্ত হয়ে উঠে পুরো প্রেসক্লাব ও তার আশপাশের এলাকা।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, বিএনপির প্রতিবাদ ও বিক্ষোভ সমাবেশকে কেন্দ্র করে এই সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। সমাবেশের সময় ওই এলাকায় যান চলচল স্বাভাবিক রাখা নিয়ে বিএনপির নেতা-কর্মীদের সঙ্গে পুলিশের বাগবিতণ্ডা হয়। একপর্যায়ে নেতা-কর্মীদের পুলিশের দিকে ইট-পাটকেল নিক্ষেপ করতে দেখা যায়। যা পরে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ায় রূপ নেয়।

বিএনপি নেতা ইশরাক হোসেন অভিযোগ করে বলেন, “শান্তিপূর্ণভাবে বিক্ষোভ সমাবেশ চলছিল। সমাবেশ শেষ হওয়ার দুই মিনিট আগেই পুলিশ এতে বাধা দেয়।”

বিএনপির সমর্থিত কয়েকজন নেতা-কর্মী আহত হয়েছেন বলেও জানান ইশরাক।

এদিকে সমাবেশ ঘিরে নিরাপত্তা নিশ্চিতে প্রেসক্লাব ও সচিবালয় এলাকায় আগেই যান চলাচল বন্ধ করে দেয় পুলিশ। বসানো হয় জলকামান। মোতায়েন করা হয় অতিরিক্ত পুলিশ সদস্য। হাজারো নেতা-কর্মীর মিছিল ও স্লোগানে উত্তপ্ত হয়ে ওঠে পুরো এলাকা।

পূর্বনির্ধারিত ঘোষণা অনুযায়ী সকালে প্রেসক্লাবের সামনে সমাবেশে যোগ দেয় বিএনপির কয়েক হাজার নেতা-কর্মী। দলটির প্রতিষ্ঠাতা ও সাবেক রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের ‘বীর উত্তম’ খেতাব বাতিলের সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে এ কর্মসূচির আয়োজন করা হয়।

সমাবেশের শুরুতে বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বলেন, “জিয়াউর রহমানের বীরত্বের স্বীকৃতি বীর উত্তম খেতাব বাতিলের যে সিদ্ধান্ত সেটা আল-জাজিরার ড্যামেজ কন্ট্রোলের ব্যর্থ চেষ্টা।”

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায় বলেন, “আঘাত আসলে প্রতিহত করতে হবে, পুলিশের কাজ পুলিশ করবে, তবুও আন্দোলন চালিয়ে যেতে হবে।”

গয়েশ্বর চন্দ্র রায় বলেন, “ভাষণ দিয়ে নয়, যুদ্ধ করেই বীর উত্তম খেতাব পেয়েছিলেন জিয়াউর রহমান। জিয়ার খেতাব নিয়ে ব্যবসা করে না বিএনপি, গর্ব করে।”


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর