Logo
শিরোনাম :
রোহিঙ্গা ক্যাম্পে স্কাসের কার্যক্রম পরিদর্শন করলেন উপআনুষ্ঠানিক শিক্ষা ব্যুরো ডিজি ডাকাতির প্রস্তুতিকালে দেশীয় অস্ত্রসহ ১৪ রোহিঙ্গা গ্রেপ্তার উখিয়ায় সন্ত্রাসী হামলায় গ্রাম্য চিকিৎসক আহত নেতাকর্মীদের ভালোবাসায় সিক্ত এম এ মন্জুর ভালোবাসায় সিক্ত হন অধ্যক্ষ মো. শাহ আলম নৌকার মনোনয়ন নিয়ে এসে ফুলেল শুভেচ্ছায় সিক্ত চেয়ারম্যান টিপু সুলতান রাজাপালংয়ে নৌকার প্রার্থী জাহাঙ্গীর কবির চৌধুরীর সমর্থনে শোকরানা ও পথ সভা অনুষ্ঠিত খরুলিয়ার গণি বৈরাগী সোয়া ৯ হাজার ইয়াবাসহ গ্রেফতার উন্নয়ন অব্যাহত রাখতে আবারো প্রার্থী হয়েছি : ইঞ্জিনিয়ার হেলাল উখিয়ার রোহিঙ্গা ক্যাম্পে আনন্দ মিছিল ও মিষ্টি বিতরণ
নোটিশ :

আমাদের ভুবনে আপনাকে স্বগতম>>তথ্য নির্ভর সংবাদ পেতে  সাথে থাকুন  ধন্যবাদ।

হোয়াইক্যং কম্বনিয়া পাড়ায় সন্ত্রাসীদের হাতে মসজিদের ইমাম মারধরের শিকার

নিজস্ব প্রতিনিধি।। / ১৬২ বার
আপডেট সময় : শুক্রবার, ২২ জানুয়ারী, ২০২১

 

টেকনাফ উপজেলার হোয়াইক্যং ইউনিয়ন খারাংখালি কম্বনিয়াপাড়ায় সন্ত্রাসীদের হাতে এক মসজিদের ইমাম ব্যাপক মারধরে শিকার হয়েছে।

জানা যায় যে,গত ১০ জানুয়ারি হোয়াইক্যং খারাংখালি ৯নং ওয়ার্ড কম্বনিয়া পাড়ায় স্থানীয় মৃত আমির হোসেনের পুত্র ছিদ্দিক আহমদ(৫০) ও ছিদ্দিক আহমদের পুত্র মাহবুর রহিম (২৮) ইব্রাহিম(২৪) এরা সহ আরো অজ্ঞাত কয়েকজন ব্যক্তি মিলে কম্বনিয়া পাড়া জামে মসজিদের ৫শতক জমি জোর পুর্বক দখল করে ঘেরাও দিয়ে রাখে,এবিষয় নিয়ে একই গ্রামের মসজিদের ইমাম মৃত আবু বক্করের পুত্র নুরুল হক(৩৮)জমি দখলের বিষয় নিয়ে বাধা বিপত্তি করলে তার উপর ক্ষিপ্ত হয়ে উক্ত ব্যক্তিগণ গত ১০ তারিখ সোলেমান সওদাগরের দোকানের সামনে ইমাম কে হত্যার উদ্দেশ্য দা,রড,লাটি ও দৈশীয় অস্ত্র নিয়ে হামলা চালিয়ে ব্যাপক গুরুত্ব আহত করে।ঘটনাটি ইমামের স্ত্রী সুমনা আক্তার(২২) জানলে স্বামীকে উদ্ধারের চেস্টা করলে তাকেও ব্যাপক মারধর করে।তার গলায় থাকা ১ভরি ওজনের একটি স্বর্ণের চেইন নিয়ে যায়।

একপর্যায়ে স্থানীয় লোকজন এগিয়ে আসলে হামলাকারী সশস্ত্র ব্যক্তিরা আহত ব্যক্তিকে পেলে ঘটনাস্থল থেকে চলে যায়।আহত ইমামকে স্থানীয় লোকজন ঘটনাস্থল থেকে উদ্ধার করে টেকনাফ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স নিয়ে ভর্তি করায় পরবর্তী হাসপাতালের ডাক্তার উন্নত চিকিৎসার জন্য কক্সবাজার সদর হাসপাতালে রেফার করে।
কম্বনিয়া পাড়া জামে মসজিদের ইমাম নুরুল হক দীর্ঘ চিকিৎসা শেষে টেকনাফ মডেল থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেন।তবে তার চোখ সহ শরীরের বিভিন্ন অংশ গুরুতর জকম হয়ে গেছে।
আহত ইমাম নুরুল হক ও তার ভাই নুরুল ইসলাম জানান,বিগত সময় মাদক বিরোধী অভিযানের কারণে দীর্ঘদিন ৯নং ওয়ার্ড কম্বনিয়া পাড়ায় স্থানীয় মৃত আমির হোসেনের পুত্র ছিদ্দিক আহমদ(৫০) ও ছিদ্দিক আহমদের পুত্র মাহবুর রহিম (২৮) ইব্রাহিম(২৪) ব্যক্তিদয় এলাকা থেকে পলাতক ছিল,এখন তারা সুযোগে এসে এলাকায় আবারও অস্ত্রের সজ্জিত হয়ে সশস্ত্র অবস্থায় থেকে রাতে দিনে এলাকায় অস্ত্রের মহড়া দিয়ে যাচ্ছে।অস্ত্রের ভয়ভীতি দেখিয়ে মসজিদের ৫শতক জমিন দখল করেছে।তাদের অন্যনায় কাজকে বাধা দিলে এবং মসজিদের জায়গা দখলের বিষয় স্থানীয় পযার্য়ে বিচার দিলে তারা ক্ষিপ্ত হয়ে উক্ত হামলা চালায়।
বতর্মানে তাদের অস্ত্রের ভয় ও প্রাণনাশের হুমকিতে আমরা খুব ভয়ে রয়েছি।তারা হামলা চালানোর পরও প্রতিনিয়ত হত্যার হুমকি দমকি দিয়ে যাচ্ছে। আমরা পুলিশের কাছে যে অভিযোগ দিয়েছি সে অভিযোগ প্রত্যাহারে জন্য চাপ সৃষ্টি করে যাচ্ছে।আমরা এবিষয়ে পুলিশ প্রশাসন সহ অন্যান্য আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর কাছে নিরাপত্তার দাবি জানায়।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর