Logo
শিরোনাম :
র‍্যাবের নাম ভাঙিয়ে বিপুল ইয়াবা আত্মসাৎ করল পুলিশের সোর্স! ধর্ম প্রতিমন্ত্রী হিসেবে শপথ নিচ্ছেন ফরিদুল হক খান দুলাল সংবাদের ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক খন্দকার মুনীরুজ্জামান মুনীর আর নেই মহাখালীর সাততলা বস্তিতে আগুন, নিয়ন্ত্রণে ১২ ইউনিট এপিবিএন এর হাতে নির্যাতিত স্থানীয় তরুণ: অভিযোগের পর এক সদস্য ক্লোজড পৌর নির্বাচনে আ.লীগের মনোনয়ন ফরম বিতরণ মঙ্গলবার নেতাকর্মীদের ভালোবাসায় সিক্ত নব নির্বাচিত সভাপতি ও সম্পাদক নারীসহ ৩ মাদক পাচারকারী ১৫ হাজার ইয়াবাসহ গ্রেপ্তার,সিএনজি জব্দ কাল থেকে বিএনপির মনোনয়ন ফরম বিতরণ শুরু কক্সবাজার জাহাঙ্গীর মেচ ও শাহ মজিদিয়া রেস্টুরেন্টকে ৪০ হাজার টাকা জরিমানা
নোটিশ :

আমাদের ভুবনে আপনাকে স্বগতম>>তথ্য নির্ভর সংবাদ পেতে  সাথে থাকুন  ধন্যবাদ।

ষড়যন্ত্রের কবলে পেকুয়ার তিন ব্যবসায়ী: মামলা প্রত্যাহার ও মুক্তি দাবি

বিশেষ সংবাদদাতা / ৮৫১ বার
আপডেট সময় : মঙ্গলবার, ১০ নভেম্বর, ২০২০

স্থানীয় কুচক্রি মহলের ইন্দনে গভীর ষড়যন্ত্রের কবলে পড়ে কারাগারে রয়েছেন পেকুয়া উপজেলার টইটং ইউনিয়নের তিন ব্যবসায়ী। মহল বিশেষের চক্রান্তের কারণে ওই ব্যবসায়ী তিন ভাই বর্তমানে কারাগারে রয়েছে। অপরদিকে তিন ব্যবসায়ীর কারাবাসের ঘটনায় পরিবারের সদস্যরা ও স্থানীয়রা দারুণভাবে হতাশ হয়েছে। স্থানীয়রা ওই তিন ব্যবসায়ী ভাইয়ের নি:শর্ত মুক্তি দাবি করেছেন এবং ডিবি পুলিশ কর্তৃক দায়েরকৃত মামলাও তদন্তপূর্বক প্রত্যাহার দাবি করেছেন।

জানা যায়, গত ৭নভেম্বর কক্সবাজার গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি) পেকুয়া উপজেলার টইটং ইউনিয়নের টইটং বাজারের ‘দি রক সেইড’ ও পেকুয়া বাজারের এসডি সিটি সেন্টারের ‘দি টাচ টেক’ নামক দুইটি দোকানে অভিযান চালায়। এসময় ওই দোকান দুইটির মালিক পেকুয়া উপজেলার টইটং ইউনিয়নের পূর্ব টইটং গ্রামের মরহুম মৌলভী আবুল হোসেন এর তিন পুত্র মো: হোছাইন (৩৫), মো: দেলেয়ার হোসেন (২৮) ও দিদার হোছাইন (৩০) কে ৬৬টি মোবাইল সেটসহ আটক করে। এরপর তিন ভাইকে পৃথক দুইটি মামলা দিয়ে কারাগারে প্রেরণ করে ডিবি পুলিশ।

মরহুম মৌলভী আবুল হোসেনের কলেজ পড়ুয়া ছেলে মো: আমজাদ অভিযোগ করে এ প্রতিনিধিকে জানান, স্থানীয় কিছু কুচক্রি মহলের ইন্দনে কক্সবাজার ডিবি পুলিশ তাদের দুইটি দোকানে অভিযান চালিয়েছে। তারা বৈধভাবে পেকুয়া বাজার ও টইটং বাজারে মোবাইল বেচাকেনার ব্যবসা করছে। তাদের দোকানে অবৈধ ও চোরাই মোবাইল সেট কোন সময় বিক্রি করা হয়নি। ডিবি পুলিশ দুইটি দোকান থেকে যে ৬৬টি বিভিন্ন ব্রান্ডের মোবাইল সেট জব্দ করে নিয়ে গেছে সেগুলোর বৈধ কাগজপত্র বা ক্রয়ের রিসিট রয়েছে। তারা কোন সময় তাদের দুইটি দোকানে অবৈধ ব্যবসার সাথে জড়িত নাই।

আমজাদ আরো বলেন, তারা বৈধভাবে ব্যবসা করে যাচ্ছেন। এটি কিছু মহলের সহ্য হচ্ছেনা। তাদের ব্যবসাকে ক্ষতি সাধনের জন্য কিছু মিডিয়ায় তাদের বিরুদ্ধে চোরাই মোবাইলের ব্যবসার অভিযোগ আনা হলেও তা পুরোপুরি অসত্য আর মিথ্যাচার ছাড়া আর কিছুই নয়। এরপরেও ডিবি পুলিশ তার তিন ব্যবসায়ী ভাইকে মামলা দিয়ে কারাগারে প্রেরণ করেছেন। আমজাদ তাদের দুইটি দোকানে ডিবি পুলিশের অভিযানকে নিছক ষড়যন্ত্র বলে দাবি করেন এবং ডিবি পুলিশের মামলাকে ‘হয়রানীমূলক মামলা’ উল্লেখ করে তার তিন ভাইয়ের নামে দায়েরকৃত মিথ্যা মামলা প্রত্যহারপূর্বক অবিলম্বে মুক্তি দাবি করেছেন।

টইটং এলাকার স্থানীয় বাসিন্দারা ক্ষোভ প্রকাশ করে জানান, মরহুম মৌলভী আবুল হোছাইন সমাজের একজন ভাল মানুষ ছিলেন। তার পুত্ররাও সৎভাবে ব্যবসা করে জীবিকা নির্বাহ করে আসছিলেন। ডিবি পুুলিশ তাদের অহেতুক মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানী করছে। স্থানীয়রাও অবিলম্বে ওই তিন ব্যবসায়ী ভাইয়ের বিরুদ্ধে ডিবি পুলিশের দায়েরকৃত মিথ্যা মামলা প্রত্যহার দাবি করেছেন।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর