Logo
শিরোনাম :
র‍্যাব ৯ এর হাতে ধরা পড়লো মাদক কারবারি জাকির চট্টগ্রাম থেকে ভাসানচরের উদ্দেশ্যে রওয়ানা দিল ১৬৪৫ রোহিঙ্গা ঐতিহ্যবাহী মেজবান খেয়ে ভাসানচরের উদ্দেশ্যে রোহিঙ্গাদের যাত্রা সত্তরের দশক থেকে এদেশে পালিয়ে আসা শুরু করে রোহিঙ্গারা   ডিএনসির অভিযানে এক মাদক ব্যবসায়ী আটক,পলাতক-১ ঘুমধুমের দফাদার ছৈয়দ অালম ইয়াবাসহ আটক জাতির পিতার সোনার বাংলার’ স্বপ্ন’ আজ বাস্তবতা: সেনা প্রধান অাগামি রবিবারে পার্বত্যমন্ত্রী আসছেন নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার বাইশারীতে প্রথমদিনে ২০ বাসে হাজার রোহিঙ্গা ভাসানচরের উদ্দেশ্যে যাত্রা উখিয়া থেকে ভাসানচরের উদ্দেশ্যে রওনা দিছে রোহিঙ্গা ভর্তি ২০টি বাস
নোটিশ :

আমাদের ভুবনে আপনাকে স্বগতম>>তথ্য নির্ভর সংবাদ পেতে  সাথে থাকুন  ধন্যবাদ।

প্রদীপের দেহরক্ষী কনস্টেবল রুবেল শর্মা ফের ৫ দিনের রিমান্ডে

কক্সবাজার প্রতিনিধিঃ / ৩৬ বার
আপডেট সময় : বুধবার, ২৮ অক্টোবর, ২০২০

সেনাবাহিনীর অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা মো. রাশেদ হত্যা মামলার আসামি ও টেকনাফ থানার সাবেক ওসি প্রদীপ কুমার দাশের দেহরক্ষী হিসেবে পরিচিত কনস্টেবল রুবেল শর্মার আরও ৫ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত৷

বুধবার (২৮ অক্টোবর) দুপুরে কক্সবাজার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত নম্বর-৩ (টেকনাফ) এর বিচারক তামান্না ফারাহ এই রিমান্ড মঞ্জুর করেন৷
এর আগে সকালে একই আদালতে রুবেলের ৮ দিনের রিমাণ্ড আবেদন করেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা র‌্যাব-১৫ এর সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার মো. খায়রুল ইসলাম।

তিনি নিজেই এ তথ্য জানান, ইতোমধ্যে সাতদিনের রিমান্ড নেওয়া হয় রুবেল শর্মাকে। রিমান্ডে তার কাছ থেকে সিনহা হত্যা মামলা সম্পর্কে অনেক গুরুত্বপূর্ণ তথ্য পাওয়া গেছে। কিন্তু আরও তথ্যের জন্য আবারও রিমাণ্ড আবেদন করা হয়েছে। শুনানি শেষে আদালত ৫ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন।

তথ্য মতে, সিনহা হত্যা মামলা ১৪ আসামির মধ্যে সর্বশেষ আসামি হিসেবে সংযুক্ত হয় রুবেল শর্মা। গত ১৪ সেপ্টেম্বর গ্রেপ্তার দেখিয়ে আদালতের মাধ্যমে তাকে জেল হাজতে পাঠানো হয়। কথিত আছে সাবেক কনস্টেবল রুবেল শর্মা ওসি প্রদীপ কুমার দাশের বিভিন্ন অপকর্মের অন্যতম সহযোগী ছিলেন। গত ৩০ সেপ্টেম্বর মামলার আইও র‌্যাব-১৫ এর সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার মো. খায়রুল ইসলামের ১০ দিনের রিমান্ড আবেদনের প্রেক্ষিতে সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত নম্বর-৩ (টেকনাফ) এর বিচারক তামান্না ফারাহ রুবেল শর্মার সাতদিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন। ২ অক্টোবর তাকে রিমান্ড হেফাজতে নেওয়া হয়।

উল্লেখ্য, গত ৩১ জুলাই রাতে কক্সবাজার-টেকনাফ মেরিন ড্রাইভের বাহারছড়া ইউনিয়নের শামলাপুর এলাকায় এপিবিএনের চেকপোস্টে পুলিশের গুলিতে নিহত হন মেজর (অব.) সিনহা মো. রাশেদ খান। এ ঘটনায় ৫ আগস্ট নিহত মেজর (অব.) সিনহার বড় বোন শারমিন শাহরিয়ার ফেরদৌস বাদি হয়ে ৯ জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর