Logo
শিরোনাম :
উখিয়ায় ২জন চেয়ারম্যান প্রার্থীসহ ১৪জনের মনোনয়ন প্রত্যাহার ক্লাইমেট চেন্জে বিশ্বের সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত দেশ বাংলাদেশ : স্কাস চেয়ারম্যান জেসমিন প্রেমা উখিয়ায় ৬ খুনের ঘটনায় গ্রেফতার ৪ উখিয়ায় সমাজ কল্যাণ ও উন্নয়ন সংস্থা (স্কাস)’র কমিউনিটি রিসোর্স সেন্টার উদ্বোধন জাহাঙ্গীর কবির চৌধুরীর সর্মথনে এক নির্বাচনী মত বিনিময় সভা অনুষ্ঠিত ৬ রোহিঙ্গা হত্যার ঘটনায় ১০ জন আটক রোহিঙ্গা ক্যাম্পে ৬ খুনের ঘটনায় থানায় মামলা বিএফইউজের নেতৃত্বে ফারুক-দীপ, সর্বোচ্চ ভোটে সদস্য হলেন দেশ রূপান্তরের সুইটি রোহিঙ্গা নেতা মহিবুল্লাহ হত্যায় সরাসরি অংশ নিয়েছে আজিজুল চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী জামী চৌধুরীর ব্যাপক গণসংযোগ
নোটিশ :

আমাদের ভুবনে আপনাকে স্বগতম>>তথ্য নির্ভর সংবাদ পেতে  সাথে থাকুন  ধন্যবাদ।

কক্সবাজারে ফের গ্যাসের দাম বাড়ানোর পাঁয়তারা ডিলারদের

কক্সবাজার প্রতিনিধিঃ / ১০৫ বার
আপডেট সময় : মঙ্গলবার, ১৩ অক্টোবর, ২০২০

কক্সবাজার জেলাব্যাপী সিন্ডিকেট করে ফের গ্যাসের দাম বৃদ্ধির পাঁয়তারা করছে ডিলারেরা। সম্প্রতি ডিলারেরা মিলে গঠন করেছে একটি কমিটি। অভিযোগ রয়েছে, ভোক্তাদের জিম্মি করার জন্য মূলত ওই কমিটি গঠন করা হয়েছে।
জানা যায়, জেলা প্রশাসন ও জাতীয় ভোক্তা-অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর জেলা কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক মো. ইমরান হোসাইনের নেতৃত্বে গ্যাসের অতিরিক্ত মূল্যবৃদ্ধির অভিযোগে লাগাতার অভিযান পরিচালিত হয়। অভিযানের আগে গ্যাসের দাম সিন্ডিকেট করে ১১০০ টাকা নির্ধারণ করা হয়। কিন্তু অভিযানের পর ভেঙে যায় সেই সিন্ডিকেট। তখন নিয়ন্ত্রণে আসে গ্যাসের মূল্য।
খোঁজ নিয়ে জানা যায়, এলপি গ্যাসের সরকারি মূল্য ৬০০ টাকা। কিন্তু ডিলারদের সাথে আঁতাত করে খুচরা ব্যবসায়ীরা ৭৫০ থেকে ৮৫০ টাকায় বিক্রি করছে। এছাড়া এসএল গ্যাস খুচরা ৭৮০ টাকা, পাইকারি ৭০০ টাকা, জেএমএল গ্যাস খুচরা ৭৬০ টাকা, পাইকারি ৭০০ টাকা, ৩৫ কেজি ওজনের গ্যাস খুচরা ২২৫০ টাকা, পাইকারি ২১০০ টাকা ও ৪৫ কেজি ওজনের গ্যাস খুচরা-পাইকারি ২৯০০ টাকায় বিক্রি করা হচ্ছে।এদিকে, অভিযানে নাস্তানাবুদ হওয়া গ্যাসের ডিলারেরা আবারও দাম বৃদ্ধিতে নানা ফন্দি আঁটে। সম্প্রতি ডিলারদের সমন্বয়ে একটি কমিটি গঠন করা হয়।কমিটিতে সরোয়ার কামাল সিকদার সভাপতি ও গোলাম আরিফ লিটন সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হয়। তাদের নেতৃত্বে খুচরা ব্যবসায়ীদের ভুল বুঝিয়ে আন্দোলন করা হয়। গত ৭ অক্টোবর ওই কমিটির ইশারায় বন্ধ রাখা হয় কিছু খুচরা গ্যাসের দোকান। এ ব্যাপারে সরওয়ার কামাল সিকদার বলেন, জাতীয় ভোক্তা-অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর আমাদের হয়রানি করছে।তাদের দাবি, সরকারি ৬০০ টাকা রেটে গ্যাস বিক্রি করার। আমরা ৬০০ টাকায় চট্টগ্রাম থেকে পাইকারি গ্যাস কিনে এনে কীভাবে একইদামে বিক্রি করবো ? আমাদের পরিবহন, দোকান, কর্মচারীসহ নানা খরচ রয়েছে। তাদের বেধে দেয়া দামে আমরা গ্যাস বিক্রি করতে পারবো না। জাতীয় ভোক্তা-অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর জেলা কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক ইমরান হোসাইন বলেন, তাদের মদদে কয়েকদিন ধরে কক্সবাজার ভোক্তা অধিকারের দাপ্তরিক নাম্বারে অহেতুক ফোন করে বিরক্ত করা হচ্ছে। সাধারণ গ্রাহকদের জিম্মি করে রাখতে গ্যাসের ডিলারেরা আন্দোলনের নামে এমন বিতর্কিত কর্মকাণ্ড করছে। যা কখনো সফল হবে না। ভোক্তা সাধারণের অধিকার রক্ষায় আমরা বদ্ধপরিকর।

 


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর