Logo
শিরোনাম :
উখিয়ায় ২জন চেয়ারম্যান প্রার্থীসহ ১৪জনের মনোনয়ন প্রত্যাহার ক্লাইমেট চেন্জে বিশ্বের সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত দেশ বাংলাদেশ : স্কাস চেয়ারম্যান জেসমিন প্রেমা উখিয়ায় ৬ খুনের ঘটনায় গ্রেফতার ৪ উখিয়ায় সমাজ কল্যাণ ও উন্নয়ন সংস্থা (স্কাস)’র কমিউনিটি রিসোর্স সেন্টার উদ্বোধন জাহাঙ্গীর কবির চৌধুরীর সর্মথনে এক নির্বাচনী মত বিনিময় সভা অনুষ্ঠিত ৬ রোহিঙ্গা হত্যার ঘটনায় ১০ জন আটক রোহিঙ্গা ক্যাম্পে ৬ খুনের ঘটনায় থানায় মামলা বিএফইউজের নেতৃত্বে ফারুক-দীপ, সর্বোচ্চ ভোটে সদস্য হলেন দেশ রূপান্তরের সুইটি রোহিঙ্গা নেতা মহিবুল্লাহ হত্যায় সরাসরি অংশ নিয়েছে আজিজুল চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী জামী চৌধুরীর ব্যাপক গণসংযোগ
নোটিশ :

আমাদের ভুবনে আপনাকে স্বগতম>>তথ্য নির্ভর সংবাদ পেতে  সাথে থাকুন  ধন্যবাদ।

ক্যাম্পে মাদক ও অস্ত্রবাজদের ঠাঁই হবে না… এপিবিএন প্রধান মোশারফ

টেকনাফ (কক্সবাজার) প্রতিনিধি / ১৯৩ বার
আপডেট সময় : শুক্রবার, ৯ অক্টোবর, ২০২০

ক্যাম্পে কোন মাদক ও অস্ত্রবাজদের ঠাঁই হবেনা উল্লেখ করে আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়ন (এপিবিএন)-এর অতিরিক্ত পুলিশ মহাপরিদর্শক (আইজিপি) মোশারফ হোসেন বলেছেন, ‘ক্যাম্পে যাতে কোন অপরাধী আশ্রয় নিতে না পারে সে-ব্যাপারে সর্তক থাকতে হবে।
(৯ অক্টোম্বর) শুক্রবার দুপুরে টেকনাফের নয়াপাড়া, শালবন ও পুটিবনিয়া নামক রোহিঙ্গা ক্যাম্প পরির্দশনে এসে এপিবিএন-এর প্রধান এসব কথাগুলো বলেছেন। এসময় তিনি ক্যাম্প ঘুরে দেখেন এবং সাধারন রোহিঙ্গাদের সঙ্গে কথা বলেন। এর আগে ক্যাম্পে দায়িত্বরত পুলিশ সদস্যদের সঙ্গে বৈঠক করেন।
আইজিপি মোশারফ হোসেন বলেন, ‘ক্যাম্পের লোকজন যাতে কোন অপরাধের সঙ্গে জড়িয়ে না পরে, সেদিকে দৃষ্টি রাখতে হবে। ইতি মধ্যে ক্যাম্পে মাদক ও অস্ত্রধারীর বিরুদ্ধে অভিযান চলমান। ক্যাম্পসহ আশপাশ এলাকা যাতে পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে সকলকে দায়িত্বের সঙ্গে কাজ করতে হবে।’
এপিবিএন-এর প্রধান বলেন, ‘তাছাড়া মাঝিরা যাতে অপরাধের সঙ্গে না জড়ায়, নজরদারী বাড়ানো হবে। সকল অপরাধীদের আইনের আওতায় আনা হবে এবং অস্ত্র ও মাদক বিস্তার রোধে কঠোর প্রদক্ষেপ গ্রহনের নির্দেশ দেন।’
এসময় উপস্থিত ছিলেন, শরণার্থী ত্রাণ ও প্রত্যাবাসন কমিশনার এর প্রতিনিধি টেকনাফের নয়াপাড়া রেজিষ্টার্ড ক্যাম্প, ক্যাম্প-২৪ (লেদা), ক্যাম্প-২৫ (আলী খালী) ইনচার্জ মো. আবদুল হান্নান, কক্সবাজারে ১৬’র ব্যাটালিয়ন (এপিবিএন) পুলিশ সুপার (এসপি) মোহাম্মদ হেমায়েতুল ইসলাম, অতিরিক্তি পুলিশ সুপার মো. সোহেল রানা, উখিয়া সার্কেল শাকিল আহমেদ, টেকনাফ মডেল থানার ওসি হাফিজুর রহমান, নয়াপাড়া পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ পরির্দশক রকিবুল ইসলাম।
সম্প্রতি সময়ে উখিয়ার কুতুপালং রোহিঙ্গা ক্যাম্পগুলো উত্তপ্ত হয়ে উঠেছে। রোহিঙ্গাদের মধ্যে অভ্যন্তরীণ দ্বন্দ্ব, ইয়াবা ও ক্যাম্পভিত্তিক আধিপত্য বিস্তার নিয়ে প্রতিনিয়ত সংঘর্ষের কারণে এ অবস্থা সৃষ্টি হয়েছে। এতে সাধারণ রোহিঙ্গা ও স্থানীয়রা উদ্বিগ্ন হয়ে পড়েছে। গত সপ্তাহজুড়ে উখিয়ার কুতুপালং রোহিঙ্গা ক্যাম্পে চলমান সংঘর্ষে প্রাণ হারিয়েছে ৮ রোহিঙ্গা। আহত হয়েছিল শতাধিকের বেশি মানুষ।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর