Logo
শিরোনাম :
উখিয়ায় ২জন চেয়ারম্যান প্রার্থীসহ ১৪জনের মনোনয়ন প্রত্যাহার ক্লাইমেট চেন্জে বিশ্বের সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত দেশ বাংলাদেশ : স্কাস চেয়ারম্যান জেসমিন প্রেমা উখিয়ায় ৬ খুনের ঘটনায় গ্রেফতার ৪ উখিয়ায় সমাজ কল্যাণ ও উন্নয়ন সংস্থা (স্কাস)’র কমিউনিটি রিসোর্স সেন্টার উদ্বোধন জাহাঙ্গীর কবির চৌধুরীর সর্মথনে এক নির্বাচনী মত বিনিময় সভা অনুষ্ঠিত ৬ রোহিঙ্গা হত্যার ঘটনায় ১০ জন আটক রোহিঙ্গা ক্যাম্পে ৬ খুনের ঘটনায় থানায় মামলা বিএফইউজের নেতৃত্বে ফারুক-দীপ, সর্বোচ্চ ভোটে সদস্য হলেন দেশ রূপান্তরের সুইটি রোহিঙ্গা নেতা মহিবুল্লাহ হত্যায় সরাসরি অংশ নিয়েছে আজিজুল চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী জামী চৌধুরীর ব্যাপক গণসংযোগ
নোটিশ :

আমাদের ভুবনে আপনাকে স্বগতম>>তথ্য নির্ভর সংবাদ পেতে  সাথে থাকুন  ধন্যবাদ।

অর্থ সহায়তার আওতায় ৮ হাজার রোহিঙ্গা শিশু

এম আজিজ রাসেল কক্সবাজার / ২০৭ বার
আপডেট সময় : শনিবার, ৫ সেপ্টেম্বর, ২০২০

ইউনিসেফ এর সহযোগিতায় ৩২টি রোহিঙ্গা ক্যাম্পে দুস্থ, অসহায়, প্রতিবন্ধী ও এতিম শিশুদের নিয়ে কাজ করছে সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়। গত ৩ বছরে ৮ হাজার ৬৪ জন রোহিঙ্গা শিশুদের মোট ১১ কোটি ১৮ লাখ ২ হাজার টাকা নগদ সহায়তা দেয়া হয়েছে। সর্বশেষ চলতি বছরের জুলাই-আগষ্টে ৩২টি ক্যাম্পে বিতরণ করা হয়েছে ১ কোটি ২৮ লাখ টাকা।

মিয়ানমারে সেনাবাহিনীর হাতে গণহত্যার শিকার হয়ে ২০১৭ সালের ২৫ আগস্ট পালিয়ে এসে বাংলাদেশে আশ্রয় নেয় ৮ লাখের অধিক রোহিঙ্গা। সেখানে এতিম, প্রতিবন্ধী, দুস্থ শিশুরাও আসে।

২০১৭ সালের ২৫ আগস্টে রোহিঙ্গা ঢলের পর পরই এতিম, প্রতিবন্ধী, দুস্থ ও অসহায় রোহিঙ্গা শিশুদের নিয়ে জরিপ শুরু হয়। জরিপে প্রায় ৩৯ হাজার শিশুর মধ্য হতে ২০২০ সালের আগস্ট পর্যন্ত ৩০ হাজার ৭৪৩ জন শিশুর তথ্য যাচাই বাছাই সম্পন্ন হয়। চিহ্নিত শিশুদের বিভিন্ন শ্রেণীকরণ করা হয়।

তারমধ্যে ১০ হাজার ৮৪ জন শিশুকে ঝুঁকিপূর্ণ হিসেবে শনাক্ত করা হয়। মিডিয়াম ঝুঁকিতে রয়েছে ৮ হাজার ৪৫২ জন। আর সামান্য ঝুঁকিতে রয়েছে ২ হাজার ৯১৪ জন।

এই তিন ক্যাটাগরির মধ্যে অতিমাত্রায় ঝুঁকিতে থাকা ৮ হাজার ৬৪ জন শিশুকে রোহিঙ্গা শিশু সুরক্ষা প্রকল্পের আওতায় নগদ সহায়তা দেয়া হচ্ছে। এই প্রকল্পে পর্যায়ক্রমে আরও দেড় হাজার দুস্থ, অসহায়, এতিম ও প্রতিবন্ধী শিশুকে তালিকাভুক্ত করা হবে।

নগদ সহায়তার আওতায় মেয়ে শিশু ৪ হাজার ৪২৫ জন ও ছেলে শিশু ৩ হাজার ৬৩৯ জন রয়েছে। ইউনিসেফ এর সহযোগিতায় গত ২০১৮ সালের ফেব্রুয়ারী থেকে এসব শিশুদের নিয়ে কাজ করছে সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়।নগদ টাকা সহায়তার পাশাপাশি রোহিঙ্গা শিশুদের শিক্ষা, চিকিৎসা, খেলাধুলা, সাংস্কৃতিকসহ নৈতিকবান হিসেবে গড়ে তোলা হচ্ছে। যাতে তাদের মাঝে অপরাধ প্রবণতা হ্রাস পায়।

রোহিঙ্গা শিশু সুরক্ষা কার্যক্রম প্রকল্প সুত্রে জানা যায়, রোহিঙ্গারা আসার পর ২০১৭ সালের ১২ সেপ্টেম্বর তাদের দেখতে আসেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি আসার পর প্রত্যাবাসন না হওয়া পর্যন্ত সরকার রোহিঙ্গাদের যাবতীয় দায়িত্ব নেবেন বলে জানান। সেই সাথে রোহিঙ্গা শিশুদের সুরক্ষায় বিশেষ প্রকল্প গ্রহণ করার আশ^াস প্রদান করেন।

২০১৮ সাল থেকে রোহিঙ্গা শিশু সুরক্ষা কার্যক্রম প্রকল্পের কার্যক্রম শুরু হয়। যা আজ অবদি চলমান রয়েছে।

‘রোহিঙ্গা শিশু সুরক্ষা কার্যক্রম’ প্রকল্পের অল্টারনেটিভ ফোকাল পয়েন্ট ও সমাজসেবা কর্মকর্তা মোহাম্মদ আল-আমিন জালালী বলেন, তাদের সমাজকর্মীরা রোহিঙ্গাদের ঘরে ঘরে গিয়ে বিভিন্ন সেবা পৌঁছে দিয়ে আসছে। জরিপে ৮ হাজার ৬৪ জন রোহিঙ্গা এতিম, প্রতিবন্ধী, দুস্থ ও অসহায় শিশুদের তালিকাভুক্ত করা হয়।

তালিকা অনুযায়ী ওইসব রোহিঙ্গা শিশুদের ভরণপোষনের জন্য প্রতিমাসে ২ হাজার টাকা করে নগদ টাকা সহায়তা দেয়া হচ্ছে। ব্যাংক এশিয়ার মাধ্যমে এই টাকা বিতরণ করা হয়।

তিনি আরও বলেন, জরিপ করে রোহিঙ্গা শিশুদের বিভিন্ন ক্যাটাগরির আওতায় আনা হয়েছে। ৩২টি ক্যাম্পে যাদের মা-বাবা উভয়ই মৃত এমন এতিম শিশুর সংখ্যা ৫ হাজার ৫৮৪ জন। পরিবার হতে বিচ্ছিন্ন শিশু রয়েছে ১ হাজার ১১০ জন, পরিবারে কেউ নেই এমন শিশুর সংখ্যা ৫৬ জন। শিশু নিজেই পরিবারের প্রধান এমন শিশু রয়েছে ২৫০ জন। প্রতিবন্ধী শিশু রয়েছে ৮৩৯ জন, পিতা বা মাতা প্রতিবন্ধী এমন শিশুর আছে ১৮১ জন। শিশুসহ বাবা-মা দীর্ঘস্থায়ী নানা রোগে আক্রান্ত শিশু রয়েছে ৪২ জন। এছাড়া মা-বাবা থাকলেও খবর নেই এমন অবিচ্ছিন্ন শিশু আছে ৫৮ জন।

প্রসঙ্গতঃ ২০১৭ সালের ২৫ আগস্ট মিয়ানমারের রাখাইনে সে দেশের সেনাবাহিনী নির্যাতনের মুখে প্রাণ বাঁচাতে বাংলাদেশে রোহিঙ্গারা। তারা কক্সবাজারের উখিয়া ও টেকনাফের প্রায় ১০ হাজার একর বনভূমির উপর অস্থায়ীভাবে বসবাস করে আসছে। দীর্ঘ তিন বছর ধরে মিয়ানমারে প্রত্যাবাসন না হওয়ায় বাংলাদেশ সরকার এসব রোহিঙ্গাদের যাবতীয় সুযোগ-সুবিধা দিয়ে আসছে। আন্তর্জাতিক দাতা সংস্থার পাশাপাশি কাজ করছে বিভিন্ন এনজিও।

সুত্র :ভয়েস ওয়ার্ল্ড


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর