চতুর্থ দফায় রিমান্ড শেষে কারাগারে পাঠানো হয়েছে মেজর (অব.) সিনহা রাশেদ হত্যা মামলার দুই নম্বর আসামি টেকনাফ থানার সাবেক ওসি প্রদীপ কুমার দাশকে।

মঙ্গলবার র‌্যাবের তদন্তাধীন মামলায় রিমান্ড শেষে প্রদীপকে আদালতে তোলা হলে আদালত তাকে কারাগারে প্রেরণ করার নির্দেশ দেন।

এর আগে, সোমবার চতুর্থ দফায় তাকে একদিনের রিমান্ডে নেয় র‌্যাব। গত ১৮ আগস্ট ওসি প্রদীপ, এস আই লিয়াকত ও নন্দদুলাল রক্ষিতের সাতদিনের রিমান্ড মঞ্জুর করা হয়। এরপর ২৪ আগস্ট ওসি প্রদীপসহ সাত পুলিশের দ্বিতীয় দফায় চারদিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেন আদালত। ২৮ আগস্ট তৃতীয় দফায় এই তিন আসামির তিনদিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন আদালত।

উল্লেখ্য, গত ৩১ জুলাই (ঈদুল আজহার আগের রাত) সাড়ে ১০টার দিকে কক্সবাজার-টেকনাফ মেরিন ড্রাইভের বাহারছড়া ইউনিয়নের শামলাপুর চেকপোস্টে পুলিশের গুলিতে নিহত হন মেজর (অব.) সিনহা রাশেদ খান। ঘটনার পর পুলিশ বাদী হয়ে টেকনাফ থানায় দুটি মামলা করে। আর রামু থানায় একটি মামলা করা হয়। ৫ আগস্ট কক্সবাজার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে হত্যা মামলা করেন সিনহার বড় বোন শারমিন শাহরিয়া ফেরদৌস। এতে ৯ জনকে আসামি করা হয়। এ মামলায় এখন পর্যন্ত ১৩ জনকে গ্রেফতার করেছে র‍্যাব।