Logo
নোটিশ :

আমাদের ভুবনে আপনাকে স্বগতম>>তথ্য নির্ভর সংবাদ পেতে  সাথে থাকুন  ধন্যবাদ।

কুতুপালং রোহিঙ্গা ক্যাম্পে ফের গোলাগুলি

শহিদুল ইসলাম  উখিয়া কন্ঠ..  / ২৭৫ বার
আপডেট সময় : রবিবার, ৩০ আগস্ট, ২০২০

কক্সবাজারের উখিয়ার কুতুপালং রোহিঙ্গা ক্যাম্পে গত কয়েকদিন ধরে সন্ত্রাসীদের মধ্যে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে ব্যাপক গোলাগুলির ঘটনা ঘটেছে। এতে উভয় পক্ষের মধ্যে বেশ কয়েকজন আহত হয়েছেন। গুরুত্বর আহতদের উদ্ধার করে ক্যাম্প অভ্যান্তরে থাকা হাসপাতালে  ভর্তি করা হয়। এ রিপোট লেখাকালীন পর্যন্ত আহতদের পরিচয় পাওয়া যায়নি।

ক্যাম্প প্রশাসন, পুলিশ ও আমর্ড পুলিশ ঘটনাস্থলে রয়েছে। এখনো পর্যন্ত কাউকে আটক করতে পারেনি। উখিয়ার কুতুপালং শরণার্থী শিবিরে থমদমে  অবস্হা বিরাজ করছে।

আজ রবিবার সকাল ১১টা থেকে দুপুর পর্যন্ত থেমে থেমে গুলি বর্ষনের ঘটনা ঘটে।

রোহিঙ্গারা জানান, আরাকান রোহিঙ্গা স্যালভেশন আর্মির (আরসা) ও আল ইয়াকিন নামের দুইটি সন্ত্রাসী সংগঠন রয়েছে। উভয় পক্ষের আধিপত্য বিস্তার কে কেন্দ্র করে গোলাগুলি ঘটনা ঘটছে। গত ২৬ আগষ্ট রোহিঙ্গা সন্ত্রাসী মাষ্টার আবুল কালাম আজাদ  নামের একজন রোহিঙ্গাকে অপহরন করে নিয়ে যায়।এখনো পর্যন্ত উদ্ধার হয়নি। এ ব্যাপারে কালামের স্ত্রী নুর জাহান বাদী হয়ে গতকাল শনিবার উখিয়া থানায় মামলা দায়ের করেন। এ মামলায় রোহিঙ্গা আবদুল হামিদ সহ এগারো জনকে আসামি করা হয়।

ক্যাম্প সুত্রে জানা যায় মাষ্টার আবুল কালাম একজন আরাকান রোহিঙ্গা  স্যালভেশন আর্মির (আরসা) একজন লিডার। সে মিয়ানমারের আকিয়াব জেলার মংডু থানার নেসার আহমদের ছেলে।

কুতুপালং ক্যাম্পের রোহিঙ্গা নেতা ইউনুছ বলেন মাষ্টার আবুল কালাম অপহরন হয়। অপহরনের ঘটনা কে কেন্দ্র করে দুইপক্ষের মধ্যে গোলাগুলির ঘটনা ঘটে। কুতুপালং নিবন্ধিত রোহিঙ্গা শরণার্থী ক্যাম্প ব্যবস্থাপনা কমিটির সভাপতি হাফেজ জালাল আহাম্মদ বলেন, ক্যাম্প গুলোর নিয়ন্ত্রণ ও আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে দিনে দিনে পরিস্থিতি উদ্বেগজনক মাত্রায় চলে যাচ্ছে। গত কয়দিন ধরে বিভিন্ন ক্যাম্পে থেমে থেমে গুলির শব্দে সাধারণ রোহিঙ্গাদের মাঝে চরম ভয় ভীতি কাজ করছে

কুতুপালং ক্যাম্প ইনচার্জ মোঃ খলিলুর রহমান খান মুঠোফোন রিসিভ না করার কারনে বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি।

বিস্তারিত আসছে


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর