Logo
নোটিশ :

আমাদের ভুবনে আপনাকে স্বগতম>>তথ্য নির্ভর সংবাদ পেতে  সাথে থাকুন  ধন্যবাদ।

টেকনাফের রোহিঙ্গা ক্যাম্পে অভিযান চালিয়ে ৯ রোহিঙ্গা সন্ত্রাসী আটক :অস্ত্র, কার্তুজ ও কিরিচ উদ্ধার

শহিদুল ইসলাম  উখিয়া কন্ঠ..  / ২৪৫ বার
আপডেট সময় : মঙ্গলবার, ২৫ আগস্ট, ২০২০

কক্সবাজারের উখিয়া ও টেকনাফের  রোহিঙ্গা ক্যাম্পের পাশ্বর্বতী পাহাড়ে স্বশস্ত্র অবস্হান নিয়ে ক্যাম্প নিয়ন্ত্রন করছেন  একটি সন্ত্রাসী গ্রূপ । টেকনাফের বাইশ নাম্বার রোহিঙ্গা ক্যাম্পে স্বশস্ত্র সন্ত্রাসীরা প্রভাব খাটানোর চেষ্টা কালে সাধারন রোহিঙ্গা ধাওয়া দেন। ২৫ আগষ্ট ভোর ৫টারদিকে টেকনাফের রইক্ষ্যং পুটিবনিয়া ক্যাম্পের উত্তর-পশ্চিমে পাহাড় হতে স্বশস্ত্র আরসা গ্রুপের একটি গ্রুপ সি-ব্লক পয়েন্টে অনুপ্রবেশের চেষ্টা করলে ক্যাম্পের সাধারণ রোহিঙ্গারা ঐক্যবদ্ধ হয়ে তাদের ধাওয়া করে। এসময় উভয়পক্ষের সকাল ৭টা পর্যন্ত ৫০/৬০ রাউন্ডের অধিক ফাঁকা গুলি বর্ষণের ঘটনা ঘটে বলে স্থানীয় ক্যাম্পের মাঝি ও সাধারণ রোহিঙ্গারা স্বীকার করেন। এই সন্ত্রাসীরা উক্ত ক্যাম্পের ২২হাজার রোহিঙ্গাদের জিম্মি করে আসছে। এখনো পুনরায় হামলার আশংকায় ক্যাম্প এলাকায় থমথমে উত্তেজনা বিরাজ করছে। সাধারণ রোহিঙ্গারা আতংকে রয়েছে।  মঙ্গল বার  বিকালে টেকনাফের উনছিপ্রাং ক্যাম্প ইনচার্জ, আর্মড পুলিশ যৌথ অভিযান চালিয়ে নয়জন রোহিঙ্গা সন্ত্রাসী আটক করেছ। এসময় তাদের কাছ থেকে দুইটি দদেশী তৈরি  এক নলা বন্দুক, সাত রাউন্ড কার্তুজ ও দুইটি কিরিচ।  আটককৃতরা হলেন উখিয়ার বালুখালী রোহিঙ্গা ক্যাম্পের নজির আহমদের ছেলে  আমাত উল্লাহ (২৬) টেকনাফের উনছিপ্রাং রোহিঙ্গা ক্যাম্পের রহমত উল্লাহ ছেলে নুর হাসান (১৫,একই ক্যাম্পের  হাবিবুল্লাহ ছেলে জাফর আলম (৩০), আহমদ হোসেনের ছছেলে আবদুর রহমান (২৩)  জুহুর আলমের ছেলে মো:আলম (২২),আহমদ হোসেনের  ছেলে নুর হোসেন (২৮),উখিয়ার কুতুপালং  রোহিঙ্গা ক্যাম্পের  আবু শমার ছেলে  আনোয়ার সাদেক (২০),টেকনাফের উনছিপ্রাং ক্যাম্পের আবদুর সালামের ছেলে মো:আমিন( ২২) ও শাহ আলমের ছেলে  মো: সাদেক (১৫)।এ ব্যাপারে এপিবিএন  পুলিশ বাদী টেকনাফ থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।। এপিবিএন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সোলেহ রানা সত্যতা স্বীকার করেন। টেকনাফ থানার ডিউটি  অফিসার সত্যতা স্বীকার করেন।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর