Logo
নোটিশ :

আমাদের ভুবনে আপনাকে স্বগতম>>তথ্য নির্ভর সংবাদ পেতে  সাথে থাকুন  ধন্যবাদ।

পেকুয়া প্রতিনিধি / ৮৫ বার
আপডেট সময় : শনিবার, ১৫ আগস্ট, ২০২০

মা ও বড় ভাইকে মারধরের ঘটনায় কক্সবাজার বেতারের কর্মচারী রিদোয়ানুল করিমকে আসামী করে কুতুবদিয়া জুডিসিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতে মামলা করায় গৃহবধুকে ফের প্রাণনাশের হুমকি দিচ্ছে বলে অভিযোগ উঠেছে।

রিদুয়ানুল করিম কুতুবদিয়া দ্বীপের কৈয়ারবিল ইউনিয়নের পরান সিকদারপাড়ার মৃত করিম দাদের ছেলে। সে বাংলাদেশ বেতার কক্সবাজার কার্যালয়ের ৪র্থ শ্রেণী কর্মচারী ও কক্সটিভি ডটকম এর চেয়ারম্যান বলে জানা গেছে।

শুক্রবার (১৪ আগস্ট) সকালে কুতুবদিয়া দ্বীপের বাড়িতে এসে রিদোয়ানুল করিম ৩/৪ জন সহযোগী নিয়ে সন্ত্রাসী কায়দায় মনজুর আলমের স্ত্রী রাবেয়া বছরী ও তার শাশুড়ী জান্নাত আরা বেগমকে মামলা তুলে নেয়ার জন্য প্রাণনাশের হুমকি দিয়েছে। বর্তমানে জীবন নিরাপত্তা চেয়ে তারা আইন-শৃংখলা বাহিনী ও প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

ভুক্তভোগীরা জানান, বিগত ৫/৬ বছর পূর্বে তার মা জান্নাত আরা বেগম (৬৬) নিজ নামীয় সম্পদ বিক্রি ও জমি বন্ধক এবং সুদের বিনিময়ে টাকা নিয়ে প্রায় ৫ লাখ টাকার বিনিময়ে বাংলাদেশ বেতারে ৪র্থ শ্রেণী কর্মচারী পদে চাকুরী দেন। সে চাকুরীতে যোগদানের পর পরিবারের সাথে তেমন যোগাযোগ রাখেনি। পরে আরো টাকার জন্য মা জান্নাত আরা বেগমকে চাপ সৃষ্টির মাধ্যমে বিভিন্ন ধরনের হুমকি দিয়ে আসছিল সে। গত বছর ১২ ডিসেম্বর ৩/৪ জন দুর্বৃত্ত নিয়ে কুতুবদিয়ার বাড়িতে এসে টাকার জন্য ঝগড়ায় লিপ্ত হয়। টাকা দিতে অপারগতা প্রকাশ করায় এক পর্যায়ে রিদোয়ানুল করিম তার মাকে মারধর করে গুরুতর জখম করে। এ সময় তার ভাই মনজুর আলম ও তার স্ত্রী রাবেয়া বছরী এগিয়ে আসলে তাদেরকেও মারধর করে।
আহতদের ঘটনাস্থল থেকে উদ্ধার করে কুতুবদিয়া সরকারি হাসপাতালে ভর্তি করান প্রতিবেশী লোকজন। এ ঘটনায় আহত মনজুর আলমের স্ত্রী রাবেয়া বছরী বাদি হয়ে একেএম রিদোয়ানুল করিমসহ ৩জনকে আসামী করে গত ৪ জানুয়ারী কুতুবদিয়া সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতে (সিআর নং-১৫/২০২০) মামলা দায়ের করেন। চলিত (আগস্ট) মাসে আদালত যথানিয়মে চালু হলে রিদোয়ানুল করিম বাদিকে মামলা তুলে নেয়ার জন্য হুমকি অব্যহত রাখে। মামলা তুলে না নিলে প্রাণনাশ সহ মিথ্যা মামলায় জড়ানোর ও হুমকি দিচ্ছে।
সে বাংলাদেশ বেতারে ৪র্থ শ্রেণী কর্মচারী পদে চাকুরী করার পরও কক্সটিভির চেয়ারম্যান ও
কক্সবাজার বেতারের সিনিয়র সাংবাদিক পরিচয় দিয়ে পুলিশ ও প্রশাসনকে দূর্বল করে চলেছে। এমনকি সে তার পরিচিত এক সচিবের নাম ব্যবহার করে ক্ষমতার ভয় দেখাচ্ছে বলে দাবী করেন ভুক্তভোগীরা।

বৃদ্ধা মা জান্নাত আরা বেগম (৬৬) জানান, বড় আসা নিয়ে ছেলে রিদোয়ানুল করিমকে ৫ লাখ টাকার বিনিময়ে বেতারে চাকুরি দিয়েছি। তার বড়ভাই মনজুর আলম সুদের-মূলে মহাজন থেকে টাকা নিয়ে এবং নিজের নামীয় জমি বিক্রি করে চাকুরীর টাকা দিয়েছি। মনজুর আলম এখনো সেই ঋণের টাকা পরিশোধ করতে না পারায় মহাজনরাও চাপ সৃষ্টি করে যাচ্ছে প্রতিনিতই। এ কথা রিদোয়ানকে বলায় হলে সে ৩/৪ জন দুর্বৃত্ত নিয়ে কয়েক মাস আগে আমাকে এবং বড় ছেলে ও বউকে মারধর করে।

মনজুর আলম জানান, রিদোয়ানুল করিম কক্সটিভি ও বেতারের সিনিয়র সাংবাদিক পরিচয় দিয়ে সংবাদ প্রকাশের কথা বলে কুতুবদিয়ার অনেক লোক থেকে টাকা হাতিয়ে নিয়ে যায়। প্রতারকের খপ্পরে পড়া আর্থিক ক্ষতিগ্রস্ত লোকজন তাদের বাড়িতে এসে টাকা ফেরত চেয়ে এবং হয়রানির অভিযোগ দিচ্ছে বৃদ্ধার মা জান্নাত আরা বেগমের নিকট। এসব যন্ত্রণায় বৃদ্ধা মা জান্নাত আরা বেগম হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়েছে। বর্তমানে মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা নড়ছে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর