Logo
শিরোনাম :
বন্যায় ক্ষতিগ্রস্থ উখিয়ার ১২০এলাকায় প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ সহায়তা প্রদান হোয়াইক্যং উলুবনিয়ায় পানিবন্দি ক্ষতিগ্রস্ত দের মাঝে ত্রাণ বিতরণ লঘুচাপের কারণে বৃষ্টি দুই-তিন দিন থাকতে পারে তর্কের জের ধরে কাঞ্জরপাড়ায় প্রতিপক্ষের হামলায় ৩জন আহত টেকনাফ থানা পুলিশের অভিযানে ইয়াবাসহ দুই নারী মাদক ব্যবসায়ী আটক কক্সবাজারে টানা দুই দিনের ভারি বর্ষণে বন্যা ও পাহাড় ধসে ১৭ জনের মৃত্যু উখিয়ায় নিহত পরিবারের মাঝে নগদ টাকা ও খাদ্য সহায়তা প্রদান রোহিঙ্গা ক্যাম্প পরিদর্শনে বিভাগীয় কমিশনার বাঁকখালী-মাতামুহুরি অববাহিকায় বন্যা পরিস্থিতির অবনতি, ২ লক্ষাধিক মানুষ পানিবন্দি উখিয়ায় ৩ জনের মরদেহ উদ্ধার
নোটিশ :

আমাদের ভুবনে আপনাকে স্বগতম>>তথ্য নির্ভর সংবাদ পেতে  সাথে থাকুন  ধন্যবাদ।

রামুতে হাতি সংরক্ষণে সিইএইচআরডিএফ এর ক্যাম্পেইন ও মানববন্ধন সম্পন্ন

রামু প্রতিনিধিঃ / ১৫৫ বার
আপডেট সময় : সোমবার, ২৭ জুলাই, ২০২০

 

রামুতে বন্য হাতি সংরক্ষণ, নিরাপদ আবাসস্থল, চলাচলের পথ সংরক্ষণ, হাতি শিকার বন্ধ, হাতির জন্য অভয়ারণ্য তৈরি এবং মানুষ ও হাতির মধ্যকার সংঘাত নিরোধ বিষয়ে সচেতনতা তৈরি ও সরকার এবং বন বিভাগের কর্মক্ষমতা বৃদ্ধি করার লক্ষ্যে কক্সবাজারে ক্যাম্পেইন অনুষ্ঠিত হয়েছে।

সেন্টার ফর এনভায়রনমেন্ট, হিউম্যান রাইটস এন্ড ডেভেলপমেন্ট ফোরামের উদ্যোগে রামু উপজেলার চৌমূহনী চত্বরে ক্যাম্পেইনটি অনুষ্ঠিত হয়।

সিইএইচআরডিএফ এর প্রধান নির্বাহী মোঃ ইলিয়াছ মিয়া’র সভাপতিত্বে এতে বক্তব্য রাখেন ফোরামের সামাজিক বিষয়ক উপদেষ্টা হাফেজ আবুল মনজুর, দৈনিক পূর্বদেশ’র প্রতিনিধি, সাংবাদিক শোয়েব সাঈদ প্রমূখ।

ক্যাম্পেইনে উদ্বোধনী বক্তব্য রাখেন রামু ফোরাম ব্যবস্থাপক রেজাউল করিম।

হাতি সংরক্ষণের আহবান জানিয়ে এতে বক্তব্য রাখেন পরিচালক(প্রোগ্রাম) রুহুল আমিন,অর্থ সম্পাদক রেজাউল হায়াত রেজা, ইকোসিস্টেম কনজারভেশন গ্রুপের সমন্বয়ক মুরশেদ আলম, সদস্য ইরফানুল হোসাইন, রামু ফোরাম সমন্বয়ক রিয়াজ উদ্দিন বাপ্পী, কক্সবাজার সদর ফোরামের সমন্বয়ক মোশাররফ হোসাইন প্রমূখ।

বক্তারা হাতি সংরক্ষণে আবাসস্থল রক্ষার তাগিদ দেন। তারা বলেন, কক্সবাজার সহ সারা বাংলাদেশে হাতির সংখ্যা দিন দিন কমে যাচ্ছে। হাতি পরিবেশ সুরক্ষায় গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখে। তাদের সুরক্ষায় প্রয়োজনীয় ব্যবস্তা নেওয়া জরুরী।

সভাপতির বক্তব্যে মোঃ ইলিয়াছ মিয়া বলেন, কক্সবাজারে রামু সেনানিবাস তৈরি, রেললাইন তৈরি, রোহিঙ্গাদের আবাসস্থল ও বনখেকো, প্রান্তিক ও উদ্বাস্তু জনগোষ্ঠীর আশ্রয়গ্রহণের কারণে গভীর বনের সংখ্যা দিন দিন কমে যাচ্ছে। এতে করে হাতিরা আরো অনিরাপদ হয়ে পড়ছে। তারা লোকালয়ে খাদ্যের অভাবে হানা দিচ্ছে। কখনও কখনও মানুষের সাথে সঙ্ঘাত হচ্ছে।

তিনি অবিলম্বে সরকারকে এ বিষয়ে কার্যকর উদ্যোগ গ্রহণ করার জন্য আহবান জানান। বনবিভাগ ও জনগণের সচেতনতা হাতি সংরক্ষণ এবং সঙ্ঘাতবিহীন সম্পর্ক তৈরিতে ভূমিকা রাখবে বলে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

পরিচালক(প্রকল্প) আব্দুল আলিম এর সঞ্চালনায় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন কেন্দ্রীয় ফোরামের সহকারী পরিচালক(তদন্ত ও পরিদর্শন) আনাস মাহমুদ, রামু ফোরামের সহ-ব্যবস্থাপক দপ্তর মোঃ দেলোয়ার, সহ-ব্যবস্থাপক( মিডিয়া) সাজ্জাদ হোসেন অভি, ডেভেলপমেন্ট সেক্রেটারি মোঃআলিফ , ক্লাইমেট চেঞ্জ সেক্রেটারি মোঃ তোফিক, এনভায়রনমেন্ট সেক্রেটারি মোঃনাঈম, এক্সিকিউ মেম্বার মোঃ নোমান ,কাউছার, তারেক, মোমেন এবং ইকোসিস্টেম কনজারভেশন গ্রুপ এর মেম্বার মোঃ মারুফ, সদস্য কৌশিক, সানাউর, আব্দুল আউয়াল প্রমূখ।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর