Logo
নোটিশ :

আমাদের ভুবনে আপনাকে স্বগতম>>তথ্য নির্ভর সংবাদ পেতে  সাথে থাকুন  ধন্যবাদ।

পেকুয়ায় সরকারী স্কুলের গাছ কেটে বিক্রি করে দিলেন প্রধান শিক্ষক!

বিশেষ প্রতিবেদক: / ১৬৪ বার
আপডেট সময় : বুধবার, ১৫ জুলাই, ২০২০

পেকুয়া উপজেলা সদরে প্রশাসনের নাকের ঢগায় অবস্থিত পেকুয়া মডেল সরকারী জিএমসি ইনষ্টিটিউশনের প্রধান শিক্ষক মাষ্টার জহির উদ্দিনের বিরুদ্ধে বিদ্যালয়ের গাছ কেটে বিক্রি করে টাকা আত্মসাতের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় এলাকায় তোলপাড় চলছে। সম্প্রতি এ ঘটনা সর্বত্রে জানাজানি হলে দূর্নীতিবাজ প্রধান শিক্ষক জহির উদ্দিন ঘটনা ধামাচাপা দিতে মরিয়া হয়ে দৌঁড়ঝাঁপ শুরু করেছে বলে বিভিন্ন সূত্রের বরাতে জানা গেছে।পেকুয়া জিএমসির একাধিক শিক্ষক ও কর্মচারী নাম প্রকাশ না করার শর্তে এ প্রতিনিধিকে জানান, গত কয়েক মাস পূর্বে প্রধান শিক্ষক মাষ্টার জহির উদ্দিন বিদ্যালয় পুকুরের দক্ষিণ পাড় থেকে ৮-১০ টি মাঝারী সাইজের গাছ কেটে বিক্রি করে দেয়। গাছ বিক্রির টাকা প্রধান শিক্ষক সরকারী কোষাগারেও জমা না দিয়ে নিজেই আত্মসাৎ করেন। সরেজমিনে বিদ্যালয় পরিদর্শন করে গাছ কেটে নেওয়ার সত্যতাও মিলেছে।জানা যায়, সরকারী প্রতিষ্টানের গাছ কাটতে হলে বিদ্যালয় ব্যবস্থাপনা কমিটি সভায় রেজুলেশন করে গাছ কাটার জন্য নোটিশ বোর্ডে কোটেশন বিজ্ঞপ্তি দেওয়ার সরকারী নিয়ম রয়েছৈ। এছাড়াও নিকটস্থ বন বিভাগের কাছ থেকে গাছ কাটার অনাপত্তি সনদপত্র নেওয়ার বাধ্যবাদকতা রয়েছে। গাছ কাটার বিষয়টি বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির কেউ জানেনা।অভিযোগ উঠেছে, গত কয়েক মাস পূর্বে পেকুয়া জিএমসির প্রধান শিক্ষক মাষ্টার জহির উদ্দিন বিদ্যালয় পুকুরের দক্ষিণ পাড থেকে প্রায় ৮-১০ টি মাঝারি সাইজের নানান প্রজাতির মূল্যবান বৃক্ষ কয়েকজন শ্রমিক নিয়োগ করে কেটে ফেলে। এরপর গাছগুলো পেকুয়া বাজারের একটি সমিলে বিক্রি করে দেয়। গাছ বিক্রির টাকাও প্রধান শিক্ষক জহির উদ্দিন নিজের পকেটস্থ করে আত্মসাৎ করেছেন।কোটেশন বিজ্ঞপ্তি না দিয়ে সরকারী বিদ্যালয়ের গাছ কাটার বিষয়ে জানতে প্রধান শিক্ষক জহির উদ্দিনের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, গাছ বিক্রির টাকা তিনি আত্মসাৎ করেনি। টাকাগুলো তিনি বিদ্যালয়ের কাজে খরচ করেছেন। তিনি এ বিষয়ে কোন রিপোর্ট না করার জন্য এ প্রতিবেদকের কাছে অনুরোধ করেন।

এদিকে সরকারী বিদ্যালয়ের গাছ কেটে পরিবেশ বিনষ্ট করার অভিযোগ ও সরকারী সম্পদ লুটের অভিযোগের ঘটনায় পেকুয়া জিএমসির প্রধান শিক্ষক মাষ্টার জহির উদ্দিনের বিরুদ্ধে আদালতে মামলা দায়েরের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছেন ‘আমরা পেকুয়াবাসী সংগঠন’ নামের স্থানীয় অরাজনৈতিক ও পরিবেশবাদী সংগঠন।

সংগঠনের মুখপাত্র মাহমুদুল করিম জানান, সরকারী বিদ্যালয়ের গাছ কেটে পরিবেশের ক্ষতি করা গুরুতর অপরাধ এবং পরিবেশ আইন লংঘনের শামিল। তাই ওই প্রধান শিক্ষকের কিরুদ্ধে পরিবেশ আইন জনস্বার্থে আমরা মামলা দায়ের করবো। গাছ কেটে পরিবেশের ক্ষতি যারা করবে, আমরা তাদের বিরুদ্ধে লড়ে যাবো।এছাড়াও প্রধান শিক্ষক জহির উদ্দিন পেকুয়া জিএমসিতে নিয়োগ পাওয়া পর থেকে নানান ধরনের অনিয়ম-দূর্নীতিতে জড়িয়ে পড়েছে। আগামীকাল জহির উদ্দিনের দূর্নীতির ধারাবাহিক সংবাদের ২য় পর্ব প্রকাশিত হবে। চলবে…


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর