Logo
নোটিশ :

আমাদের ভুবনে আপনাকে স্বগতম>>তথ্য নির্ভর সংবাদ পেতে  সাথে থাকুন  ধন্যবাদ।

অন্যায়ের দুষ্ট চক্র থেকে বেরিয়ে আসতে হবে-মোঃ সোহেল সওদাগর  

সেলিম চৌধুরী স্টাফ রিপোর্টারঃ / ১৬১ বার
আপডেট সময় : সোমবার, ৬ জুলাই, ২০২০

তরুণ বিএনপি নেতা পটিয়ার কৃতি সন্তান ভাটিখাইন ইউনিয়ন বাসিন্দা বিশিষ্ট ব্যাবসায়ী সমাজ সেবক মোঃ সোহেল সওদাগরের বলেছেন অন্যায়ের দুষ্ট চক্র থেকে সবাইকে বেরিয়ে আসতে হবে,নৈতিক শিক্ষা গ্রহণ করতে হবে, আল্লাহ রাসুল (সঃ) পথ অনুসরণ করতে হবে, মানুষের বিপদে সাহায্য সহযোগিতার প্রসারিত করতে হবে, ধনী গরীব সব ভেদাভেদ ভুলে যেতে হবে, হিংসা বিদ্বেষ মারামারি হানাহানি বন্ধ করতে হবে, নিরীহ মানুষের জায়গা দখল- বেদখল বন্ধ করতে হবে, গরীবের হক আদায় করতে হবে নামাজ রোজা য়াকাত আদায় করতে হবে। মানুষ হয়ে জন্মেছি যখন এসব নিয়ম মেনে ছলার সকল মুসলিম ভাই বোন পিতা মাতাকে এসব শিক্ষা তাদের সন্তানদের দিতে একজন প্রকৃত মুসলমানের কাজ। তরুণ বিএনপি নেতা ভাটিখাইন ইউনিয়ন গত ৪ মাস পর্যন্ত করোনাভাইরাসের কারণে গরীব দুঃখী মেহনতী দিন মজুর দরিদ্র কর্মহীন অসহায়

মানুষদের মাঝে দীর্ঘদিন তার ব্যাক্তিগত তহবিল থেকে  নিজের সাধ্যমত সাবান,মাস্ক এবং  বিভিন্ন সময়ে  এাণ উপহার সামগ্রী বিতরণ ও ঈদের উপহার সামগ্রী বিতরণ করেন ভাটিখাইন ইউনিয়নে । ৫ জুলাই দৈনিক জনতা ও দৈনিক ইনফো বাংলার সাংবাদিক ও আমাদের নিজস্ব প্রতিবেদক সেলিম চৌধুরী সাথে একান্ত সাক্ষাৎকারে তিনি উপরোক্ত কথাগুলো বলেন। ভাটিখাইন ইউনিয়ন কে আগামী দিনে তার ভবিষ্যত পরিকল্পনার কথা বলেন।তিনি আরোও বলেন,

বাংলাদেশের পিতা মাতা’রা খুবই আদর্শবান, সৎ, ন্যায়নিষ্ঠ, ত্যাগী ও চরিত্রবান। কিন্তু জেলখানার লাখ লাখ কয়েদি, খাদ্যে ভেজাল দেওয়া ব্যক্তিরা, প্রশ্ন ফাঁস করা মানুষরা এবং হাজার হাজার চুরি, ডাকাতি, ধর্ষণ ও খুন করা লোকগুলো কারো মা বাবা না। তারা মনে হয় এলিয়েন, ভিনগ্রহ থেকে এসেছে। এবং সম্ভবত বাংলাদেশের ট্রাজেডি এটাই যে, প্রত্যেকেই নিজের মা বাবাকে শ্রেষ্ঠ মানুষ মনে করে। ফলে বাঙালি মাত্রই একেকটা মেরুদন্ডহীন জীব হিসেবে বড় হয়, চিন্তায় ও কাজে। বাঙালির সমস্ত অন্যায় ব্যবস্থা, দুর্নীতির মূলে রয়েছে তাদের এই মানসিকতা। আমরা আমাদের শ্রদ্ধার আসনে থাকা লোকদের সব কাজ বিনা প্রশ্নে মেনে নেই। এখন চিন্তা করুন, দুর্নীতিগ্রস্ত রাজনীতিবিদ লোকটিও কারো না কারো কাছে শ্রদ্ধেয়, এমনকি যে লোকটি সদ্যই একটি ধর্ষণ করলো বা খুন করলো, সেও তার সন্তানের কাছে শ্রেষ্ঠ ভাল মানুষ। এবং কোনোদিনই সে সহজে স্বীকার করবে না, বা বিশ্বাস করতে চাইবে না যে, তার বাবা এই কাজটি করেছে। এইভাবে সন্তানেরা ও স্বজনেরা হাজার হাজার মন্দ কাজের প্রত্যক্ষ সমর্থক ও আশ্রয়দাতায় পরিণত হয়। সম্ভবত এই কারণেই আমরা অন্যায়ের দুষ্ট চক্র থেকে কখনোই বের হতে পারি না। একটি সভ্য ও ন্যায়নিষ্ঠ দেশ পেতে চাইলে সবার আগে সর্বাবস্থায় প্রশ্ন করা ও প্রতিবাদ করা শিখতে হবে। এবং অবশ্যই সেটা সবার আগে নিজের পরিবার থেকেই শুরু করা জরুরি। মোহাম্মদ সোহেল সওদাগর ভাটিখাইন ইউনিয়ন বাসীর দোয়া ও আশির্বাদ কামনা করেন যাতে আগামী দিনগুলোতে মানুষের সুখে দুঃখে পাশে থাকতে পারে আমিন।

 

 


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর