Logo
নোটিশ :

আমাদের ভুবনে আপনাকে স্বগতম>>তথ্য নির্ভর সংবাদ পেতে  সাথে থাকুন  ধন্যবাদ।

অসহায় মায়ের শেষ সম্বল সামির জীবনও অনিশ্চয়তায় : সাহায্যের আবেদন!

মহেশখালী প্রতিনিধি / ২৭৩ বার
আপডেট সময় : শুক্রবার, ৩ জুলাই, ২০২০

 

কক্সবাজারের দ্বীপ উপজেলা মহেশখালীর মাতারবাড়ি ইউনিয়নের ৭ নাম্বার ওয়ার্ডের মাইজাপাড়া গ্রামের বাবা হারা সামি’র পা ভেঙ্গে গিয়ে অনিশ্চয়তায় ভূগছে সামি এবং তার মা আয়েশা বেগমের জীবন।সামি মৃত শাহ আলমের একমাত্র পুত্র। মাত্র ৮ মাস বয়সে সে তার বাবাকে হারায়। এরপর থেকে মায়ের কুলেই বড় হতে থাকে। মা কিছু টাকার বিনিময়ে মানুষের বাড়ি বাড়ি কাজের সন্ধানে ঘুরে বেড়ায় সারাদিন। এভাবে বছর পাচ এক হলে স্কুলে ভর্তি করিয়ে সামিকে।বছরখানেক পড়াশোনাও করে। কিন্তু মায়ের একক রোজগারে তাদের ছোট্ট সংসারটিও যেন আর চলেনা। যার কারণে বাধ্য হয়ে পড়াশোনা ছাড়তে হল ৬ বছরের সামিকে। নামতে হল কাজের ছুটে। কুলিং কর্ণারে কাজ করে দৈনিক পঞ্চাশ ষাট টাকা রোজগার করত সামি। মাঝেমধ্যে অন‍্যের বাড়িতে বাজার পৌছে দেওয়ার কাজও করত টাকার বিনিময়ে।কিন্তু দুর্ভাগ্যবশত গত ২০ ই জুন তথা আজ থেকে ১২ দিন আগে বৃষ্টিময় দিনে ১০ টি টাকার বিনিময়ে একজনের বাসায় একটি কাঠাল পৌছে দিতে গিয়েই ভেজা মাটিতে পিছলে পড়ে যায় সামি। পা অনেকটা বাকা হয়ে যায়। অনুভূত হয় প্রচন্ড ব‍্যাথা। কিন্তু অর্থ সংকটের কারণে তার অসহায় মা ডাক্তারের কাছে নিয়ে যেতে পারেননি সামিকে। আশেপাশের অভিজ্ঞ মুরব্বিদের বিভিন্ন টোটকা চিকিৎসাই যেন ছিল সামির কপালে।

অবশেষে ব‍্যাথার পরিমাণ সহ‍্যের সীমা ছাড়ালে সামির মা আশপাশের মানুষের কাছ থেকে কিছু টাকা ধার নিয়ে চকরিয়া হাসপাতালে নিয়ে যায়। কর্তব‍্যরত চিকিৎসক সামিকে এক্সরে দেয়। সেখানে দেখা যায় সামির বাম পায়ের হাড় প্রায় দ্বিখন্ডিত হয়ে গিয়েছে। এরপর কিছু ঔষধ আর প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে মূল চিকিৎসার জন‍্য চারদিন পর আবার দেখা করতে বলেন। এবং সাথে দশ থেকে পনেরো হাজার মতো টাকা নিয়ে যেতে বলেন। এর সাথে আসা যাওয়া এবং আনুষঙ্গিক খরচপাতি তো আছেই। সব মিলিয়ে ত্রিশ হাজার টাকার মতো দরকার বলে জানিয়েছেন তার মা।

এদিকে টাকার অভাবে চারদিন পেরিয়ে আজ আরো দুদিন হলেও যেতে পারছেননা ডাক্তারের কাছে। যার কারণে অনিশ্চিত হয়ে পড়েছে তার একমাত্র আশ্রয়স্থল এবং একমাত্র সন্তান দশ বছর বয়সী সামির জীবন।অনাকাঙ্খিত এই পরিস্থিতি কাটিয়ে উঠতে এবং তার একমাত্র ছেলেকে পঙ্গুত্বের হাত থেকে বাচাতে সবার কাছে সাহায্য কামনা করেছেন তার মা।তার মায়ের সাথে যোগাযোগ করে একটি বিকাশ নাম্বার পাওয়া যায়। সহযোগিতা করতে ইচ্ছুক যেকেউ তার মায়ের নাম্বারে যোগাযোগ করতে পারে।
মায়ের মোবাইল নং- (01776440357),
বিকাশ নং- (01732-141746) ।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর