Logo
শিরোনাম :
হেফাজত নেতা মামুনুল গ্রেপ্তার টেকনাফে লকডাউন না মানায় দুই দিনে ১৫ হাজার ৭শ টাকা জরিমানা উখিয়ায় পত্রিকার হকারদের পরিবারে নেমে এসেছে হতাশা সরকার কর্তৃক আরোপিত নিষাধাজ্ঞা বাস্তবায়নে পেকুয়া উপজেলা প্রশাসনের তৎপরতা লকডাউন বাড়তে পারে এক সপ্তাহ চৌকিদার দিদারের মারধরে টমটম চালক গুরুতর আহত সাতকানিয়ায় সোয়া কোটি টাকার ইয়াবাসহ চালক-হেল্পার গ্রেপ্তার উখিয়ায় উপজেলা প্রশাসনের নিয়মিত অভিযানে ধাওয়া খেলো বেলাল জো বাইডেনের সম্মেলনে জলবায়ু বাস্তুচ্যুতদের জন্য ‘বৈশ্বিক উদ্যোগের’ দাবি জানাতে প্রধানমন্ত্রীর প্রতি নাগরিক সমাজের আহবান বাঁশখালীর বিদ্যুৎকেন্দ্রে পুলিশের গুলিতে পাঁচ শ্রমিক নিহত
নোটিশ :

আমাদের ভুবনে আপনাকে স্বগতম>>তথ্য নির্ভর সংবাদ পেতে  সাথে থাকুন  ধন্যবাদ।

পটিয়ায় পিতার হাতে দুইশিশু কন্যা খুন,নিজে বিষপানে আত্মাহত্যার চেষ্টা !  

সেলিম চৌধুরী স্টাফ রিপোর্টারঃ / ১৯৫ বার
আপডেট সময় : বুধবার, ১ জুলাই, ২০২০

 

চট্টগ্রামের পটিয়া উপজেলার কাশিয়াইশ ইউনিয়নের ভান্ডারগাও এলাকায় নানার বাড়িতে পিতার হাতে দুই মেয়েকে খুন করার পরে পিতা নিজেও আত্মহত্যার চেষ্টা করেছেন। কেন এই হত্যাকান্ড এই বিষয়ে কিছুই জানা যায়নি। তবে হত্যাকারী পিতা হালকা বিষ খেয়ে এখনো অবচেতন অবস্থায় আছে। গতকাল বুধবার (১ জুলাই) ভোর রাতে ৮নং কাশিয়াইশ ইউনিয়নের ৮নং ওয়ার্ড ভান্ডারগাও এলাকায় সুকুমার বড়ুয়া বাড়িতে এই মর্মান্তিক ঘটনা ঘটে। দুই মেয়েকে গলা টিপে হত্যার পর পিতা নিজেও বিষ খেয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা চালায় বলে প্রতিবেশীরা জানান। নিহত দুই মেয়ে হল টুকু বড়ুয়া (১৪) ও ছোট বোন নিশু বড়ুয়া (১১) । তারা দুজনের ৮ম ও ৫ম শ্রেণীতে পড়তো। তাদের পিতার নাম মোখেন্দু বড়ুয়া। তাদের প্রতিবেশী প্রিয়ন বড়ুয়া জানান, ‘টুকু বড়ুয়া ও নিশি বড়ুয়ার মা মারা গেছে ৩ বছর আগে ক্যান্সারে। তারা জন্ম থেকেই থাকতো মামার বাড়িতে।মেয়েগুলা এখানে তার পিসি আর মামীর কাছেই থাকতো।মামা বাহরাইনে চাকরি করে।তার মামী কিছুদিন আগে বেড়াতে গিয়েছিল । তার বাবা তাদের দেখতে আসছে কিছুদিন হয়ছে। শুনেছি মেয়েগুলো নাকি তাদের বাবার উগ্র মেজাজের কারণে উনাকে তেমন পছন্দ করতো না। মেয়েগুলা রাত্রে পিসির সাথেই ঘুমাতো। রাত্রে বাবা তাদেরকে সকালবেলা একশ দু’শ টাকার প্রলোভন দেখিয়ে উনার সাথে রাতে থাকতে বলে। বলেছিল উনি আজকে সকালে ঢাকা চলে যাবে, তাই আজকের রাতটা যেন তার সাথে থাকে। তাই তারাও রাজি হয়। ১ জুলাই বুধবার  ভোরে ঐ পাড়ার এক পরিবার সকালে দরজা খুলতেই দেখে নিহত টুকু ও নিশির বাবা মোখেন্দু বড়ুয়া তাদের পুকুর ঘাটে অচেতন অবস্থায় পড়ে আছে এবং তার মুখ দিয়ে বিষের গন্ধ আসছিল। তাই তারা উনাকে ঐখান থেকে তুলে নিজেদের ঘরে নিয়ে যায়। পড়ে ডাক্তার ডেকে তার সেবা করেন। পরে একজন মোখেন্দু বড়ুয়ার মেয়েদের খবর দিতে গিয়ে দেখে মেয়ে দুইটার লাশ বিছানায়। ঘরের মধ্যে বিষের গন্ধ। সম্ভবত তাদের গলা টিপে বা ওড়না পেছিয়েই  খুন করে পিতা।  পুলিশ এই হত্যাকাণ্ডের তদন্ত করছে। হয়তো ১/২ দিনের মধ্যে হত্যাকান্ডের আসল ঘটনা জানা যাবে।

.

 

 

 


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর