Logo
নোটিশ :

আমাদের ভুবনে আপনাকে স্বগতম>>তথ্য নির্ভর সংবাদ পেতে  সাথে থাকুন  ধন্যবাদ।

এমপি’র উদ্বোধনের দু’দিন পর সীতাকুণ্ডে মডেল মসজিদের উদ্বোধন ফলক ভেঙ্গে দিলেন দুষ্কৃতিকারীরা

সীতাকুণ্ড প্রতিনিধি। / ৩৯৬ বার
আপডেট সময় : শুক্রবার, ২৬ জুন, ২০২০

 

চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডে স্থানীয় সাংসদ দিদারুল আলমের উদ্বোধনের দু’দিন পর রাতের আধাঁরে মডেল মসজিদ নির্মাণ কাজের উদ্বোধন ফলক ভেঙ্গে দিলেন দুষ্কৃতিকারীরা। এ ঘটনায় তীব্র ক্ষোভ প্রকাশ করেন সাংসদ দিদারুল আলম। খবর পেয়ে সীতাকু- থানা পুলিশ রাতেই ঘটনাস্থল পরিদর্শণ করেন।জানা যায়,গত ২৩ জুন মঙ্গলবার দুপুরে উপজেলার মুরাদপুর ইউনিয়নের ফকিরহাট এলাকায় সাদেক মস্তান(রাঃ) উচ্চ বিদ্যালয়ের বিপরীত পাশে দৃষ্টিনন্দন এই মডেল মসজিদ ও ইসলামী সাংস্কৃতিক কেন্দ্র নির্মাণ কাজের ভিত্তিপ্রস্তর উদ্বোধন করেন স্থানীয় সাংসদ দিদারুল আলম। কিন্তু উদ্বোধনের দু’দিন পর বৃহস্পতিবার রাতে দুষ্কৃতিকারীরা মসজিদের নিরাপত্তা প্রহরীকে মারধরের পাশাপাশি উদ্বোধন ফলক ভাঙ্গার চেষ্টা চালায়। খবর পেয়ে সীতাকু- থানার এস আই মামুন ঘটনাস্থলে গেলে দুস্কৃতিকারীরা পালিয়ে যায়। এ ঘটনার ঘন্টা দু’য়েক পর এস আই মামুন চলে গেলে দুষ্কৃতিকারীরা গভীররাতে পূণরায় ঘটনাস্থলে এসে উদ্বোধন ফলক ভেঙ্গে গুড়িয়ে দেয়।মসজিদে উদ্বোধন ফলকে দুষ্কৃতিকারীদের পরিকল্পিত এ হামলার তীব্র নিন্দা জানিয়ে স্থানীয় সাংসদ দিদারুল আলম বলেন, গণতন্ত্রের মানসকন্যা আওয়ামী সভানেত্রী বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তার পিতার অসমাপ্ত কাজ সমাপ্ত করার জন্য বাংলাদেশের প্রতিটি উপজেলায় কোটি কোটি টাকা ব্যয়ে মডেল মসজিদ নির্মাণ কাজ শুরু করেন। প্রধানমন্ত্রীর স্বপ্নের বাস্তবায়নে মঙ্গলবার ফকিরহাট এলাকায় এ মডেল মসজিদ নির্মাণ কাজের উদ্বোধন করা হয়। কিন্তু সরকারের ভাবমুর্ত্তি ক্ষুণœ করতে একদল দুষ্কৃতিকারী রাতের আঁধারে উদ্বোধন ফলক ভেঙ্গে গুড়িয়ে দেয়ার পাশাপাশি মসজিদে হামলা চালায়। হামলায় জড়িত দুষ্কৃতিকারীদের দ্রুত চিহিৃত পূর্বক গ্রেপ্তারে করণীয় ব্যবস্থা নিতে পুলিশের প্রতি অনুরোধ জানান তিনি।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মিল্টন রায় জানান,রাতের আঁধারে মসজিদের উদ্বোধন ফলক ভেঙ্গে গুড়িয়ে দেওয়ার ঘটনাটি অত্যন্ত ন্যাক্কারজনক। এ ঘটনাটি শুনে আমি মর্মাহত হয়েছি। ঘটনায় জড়িতদের চিহিৃত করে আইনি ব্যবস্থা নিতে পুলিশকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

সীতাকুণ্ড মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ফিরোজ হোসেন মোল্লা ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন,মডেল মসজিদ নির্মাণ কাজে দুষ্কৃতিকারীর হামলার খবর পেয়ে আমি ঘটনাস্থলে এস আই মামুনকে পাঠালে দুষ্কৃতিকারীরা পালিয়ে যায়। কিন্তু ঘন্টাখানেক পর মামুন চলে গেলে দুষ্কৃতিকারীরা পুণরায় এসে উদ্বোধন ফলক ভেঙ্গে গুড়িয়ে দেয়। এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুতির পাশাপাশি জড়িতদের চিহিৃত করে সহসাই আইনি ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর