Logo
নোটিশ :

আমাদের ভুবনে আপনাকে স্বগতম>>তথ্য নির্ভর সংবাদ পেতে  সাথে থাকুন  ধন্যবাদ।

সিবিআইইউ’র দূর্নীতিবাজ ট্রেজারারের অপসারণ দাবিতে ইউজিসিকে স্মারকলিপি

প্রেস বিজ্ঞপ্তি: / ৫০৮ বার
আপডেট সময় : শুক্রবার, ১৯ জুন, ২০২০

 

কক্সবাজার ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটিতে সম্প্রতি সময়ে নিয়োগ পরীক্ষা ছাড়াই রেজিষ্টার পদে বিতর্কিত খন্দকার এহসান হাবিব নামের এক লোককে নিয়োগের ঘটনায় জড়িত দূর্নীতিবাজ ট্রেজারার প্রফেসর আবদুল হামিদের অপসারণসহ শাস্তির দাবি জানিয়ে বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশনের চেয়ারম্যান, সচিব ও শিক্ষা সচিব বরাবরে আগামী রোববারে ইমেইলে ও সরকারী ডাকযোগে স্মারকলিপি প্রেরণ করবে কক্সবাজার জেলা সচেতন নাগরিক পরিষদ।

জানা যায়, নিয়োগ পরীক্ষা ছাড়াই কক্সবাজার ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটিতে বিতর্কিত লোককে রেজিষ্টার পদে নিয়োগের ঘটনায় জেলাজুড়ে সমালোচনা সৃষ্টি হয়েছে। ইতিপূর্বে খন্দকার এহসান হাবিব পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের ‘গরু’ বলার অপরাধে এবং সরকার বিরোধী কর্মকান্ডে অভিযুক্ত হওয়ায় ময়মংসিংহ জেলার ত্রিশালে অবস্থিত জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়ের সহকারী রেজিষ্টার পদ থেকে খন্দকার এহসান হাবিবকে বরখাস্থ করা হয়েছিল। এবং সেখানে তার বিরুদ্ধে ৩টি মামলা হয়। এরপর খন্দকার এহসান হাবিব পালিয়ে কক্সবাজারে চলে আসে জীবিকার সন্ধানে।

এক পর্যায়ে সিবিআইইউতে তথ্য গোপন করে সহকারী রেজিষ্টার পদে জীবিকার তাগিদে নিয়োগ পরীক্ষা ছাড়াই যোগদান করেন।

কাজী নজরুল বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বিতর্কিত কর্মকান্ডের ঘটনায় বরখাস্তের ঘটনা সম্পর্কে অবগত হয় সিবিআইইউ কর্তৃপক্ষ। পরে তথ্য গোপন করার অপরাধে গত ২৮/০২/২০২০ ইংরেজী খন্দকার এহসান হাবিব সিবিআইইউ থেকে ট্রাস্টি বোর্ডর কাছে ক্ষমা চেয়ে লিখিতভাবে পদত্যাগ করেন।

এদিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের দূর্নীতিবাজ ট্রেজারার প্রফেসর আবদুল হামিদ চলতি মাসের ৩ জুন ট্রাস্টি সালাহ উদ্দিন আহমদের কথিত নির্দেশে খন্দকার এহসান হাবিবকে ফের সিবিআইইউতে কোন ধরনের নিয়োগ পরীক্ষা ছাড়াই রেজিষ্টার পদে নিয়োগ দিয়ে চিঠি ইস্যু করেন। এরপর শুরু হয় তুমুল বিতর্ক আর সমালোচনার ঝড়। এখনো বহাল তবিয়তে খন্দকার এহসান।

কক্সবাজার জেলা সচেতন নাগরিক পরিষদের নেতৃবৃন্দ আজ ১৯ জুন এক জরুরী সভা করে বিশ্ববিদ্যালয়ের দূর্নীতিবাজ ট্রেজারার আবদুল হামিদকে অপসারণসহ তার অবৈধ নিয়োগপ্রাপ্ত রেজিষ্টারেরও অপসারণের দাবিতে স্মারকলিপি প্রেরণের এই সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর