Logo
শিরোনাম :
উখিয়ায় বিলুপ্তপ্রায় বাজপাখি উদ্ধার রোহিঙ্গা ছৈয়দ নুরের এনআইডি কার্ড বাতিল করতে নির্বাচন কমিশন সহ বিভিন্ন দপ্তরে অভিযোগ থাইংখালী ব্লাড ডোনার’স ইউনিট-এর অ্যাডমিন আটকের ঘটনায় সংগঠনের বিবৃতি:- উখিয়ায় ১৪ এপিবিএনের সদর দপ্তর উদ্বোধনে অতিরিক্ত আইজিপি উখিয়ায় বালু উত্তোলনের সময় পাহাড়ের মাটি চাপা পড়ে যুবকের মৃত্যু উখিয়ায় তিন লাখ পিস ইয়াবাসহ আটক ২ রেজিষ্টার্ড রোহিঙ্গা ক্যাম্প থেকে অস্ত্র, ইয়াবা ও গুলি উদ্ধার এসআই লাভলীকে চাকরি থেকে অব্যাহতি উন্নয়নে পাল্টে গেছে উখিয়ার রাজাপালংয়ের প্রান্তিক জনপদ : সর্বত্র দৃশ্যমান উন্নয়ন প্রকল্প শোভা পাচ্ছে রোহিঙ্গা শিবির থেকে সাড়ে ৯০ হাজার ইয়াবা উদ্ধার: আটক ২
নোটিশ :

আমাদের ভুবনে আপনাকে স্বগতম>>তথ্য নির্ভর সংবাদ পেতে  সাথে থাকুন  ধন্যবাদ।

চেয়ারম্যানকে ফাঁসানো হয়েছেঃদাবী যুবলীগ সভাপতির

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ / ৩০৩ বার
আপডেট সময় : মঙ্গলবার, ১৬ জুন, ২০২০

টেকনাফের সাবরাং ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা যুবলীগের সাধারন সম্পাদকের বাসা থেকে ৪০ হাজার পিস ইয়াবা উদ্ধার করেছে পুলিশ।গতকাল ভোররাতে টেকনাফের সাবরাং এ নূর হোসেন চেয়ারম্যানের বাসাতে অভিযান চালিয়ে এই ইয়াবা উদ্ধার করা হয়। অভিযানের সময় নূর হোসেন চেয়ারম্যান পালিয়ে যায়। এই ঘটনায় নূর হোসেন চেয়ারম্যান সহ তার ৩ সহযোগির বিরুদ্ধে টেকনাফ থানায় মামলা হয়েছে বলে নিশ্চিত করেছেন টেকনাফ থানার ওসি প্রদিপ কুমার দাশ।এমন সংবাদ জানার পর ভিন্ন মত প্রকাশ করেন বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ কক্সবাজার জেলা শাখার সভাপতি সোহেল আহম্মদ বাহাদূর। তিনি নিজের প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করে একটি ফেইসবুক স্ট্যাটাস দেন যা হুবহু তুলে ধরা হলোঃ

নূর হোসেন চেয়ারম্যান কে হত্যার মিশন শুরু হয়েছে—-

এলাকায় ইয়াবার চালান উঠেছে খবর পেয়ে সাবরাং ইউনিয়নের নির্বাচিত চেয়ারম্যান নূর হোসেন তার পরিষদের দফাদার আলী আহমদ ও চৌকিদার মোহাম্মদ ইসলাম কে নিয়ে রাত ১২টার পর বেইংগা পাড়া গিয়ে ঘটনার সত্যতা জেনে পুলিশকে অবহিত করলে থানা থেকে এসআই রাম ও তার ফোর্স সহ শাহ আলম এর বাড়ি থেকে ৪০হাজার ইয়াবা উদ্ধার করা হয় এবং পুলিশ আসামীও গ্রেফতার করে যা অত্র এলাকার শত মানুষ সাক্ষী।এর আগেও ইয়াবার চালান পুলিশকে ধরিয়ে দিয়ে নজির সৃষ্টি করেছিলেন নূর হোসেন চেয়ারম্যান।


তার রাজনৈতিক ক্যারিয়ার নষ্ট করার জন্য তার রাজনৈতিক প্রতিপক্ষ ষড়যন্ত্র মূলক ভাবে তাকে সেই মামলায় ১ নাম্বার আসামী করে ফাঁসানো হয়েছে যা মিথ্যা ও সম্পূর্ণ বানোয়াট শত মানুষ সাক্ষী আছে।
নূর হোসেন সাবরাং উচ্চ বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সদস্য এবং সভাপতি-সাবরাং দারুল উলুম মাদ্রাসা পরিচালনা কমিটি।

সাবরাং ইউনিয়ন পরিষদের গণমানুষের প্রিয়নেতা, সাবরাং ইউনিয়ন পরিষদের সম্মানিত চেয়ারম্যান, বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ সাবরাং ইউনিয়ন শাখার ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে কাউন্সিলরদের প্রত্যক্ষ ভোটে নির্বাচিত সাধারণ সম্পাদক, টেকনাফ উপজেলা যুবলীগের বারবার নির্বাচিত সফল সাধারণ সম্পাদক, সাবেক রাজপথ কাঁপানো ছাত্রনেতা জননেতা জনাব নুর হোসেন চেয়ারম্যান। সাবরাং ইউনিয়নের বঙ্গবন্ধুর আমলের প্রকৃত আওয়ামী-পরিবারকে ধ্বংস করার জন্য পরিকল্পিত ভাবে ষড়যন্ত্রমূলক মরণনেশা ইয়াবার অপবাদ দেওয়া হয়েছে। যিনি নিজে সাবরাং ইউনিয়নে এই মরণনেশা ইয়াবার বিরোদ্ধে যুদ্ধ ঘোষনা করে একের পর এক ইয়াবার চালান প্রশাসনের মাধ্যমে রুখে দিয়ে ইয়াবামুক্ত টেকনাফ গড়ার কাজে দিন-রাত পরিশ্রম করে যাচ্ছেন আজ তার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রমূলকভাবে সাবরাং বাসীর প্রিয়নেতা নুর হোসেন চেয়ারম্যানকে রাজপথ থেকে সরানোর জন্য যে জঘন্য ষড়যন্ত্র হয়েছে তার তীব্রনিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি।
মাননীয় পুলিশ সুপার মহোদয় যেভাবে সুনামের সাথে কক্সবাজারে মাদক দমনে ভূমিকা রেখে চলেছেন , আমি সবিনয় অনুরোধ করছি এ ঘটনার প্রকৃত রহস্য উদঘাটন করে আপনার সুনাম অক্ষুণ্ণ রাখবেন।

 

বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের পক্ষ থেকে মাননীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী, স্বরাষ্ট্র সচিব ও আই জি মহোদয় বরাবর দরখাস্ত দেয়া হবে এই জঘন্য ষড়যন্ত্রের সুষ্ঠু তদন্ত করে প্রকৃত অপরাধীদের শাস্তি নশ্চিত করার জন্য অন্যথায় কোন ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান বা জনপ্রতিনিধি বা জননেতারা ভবিষ্যতে ইয়াবা দমনে এগিয়ে আসবে না।
পাশাপাশি আমি অনুরোধ করবো টেকনাফ উপজেলা যুবলীগ ও ছাত্রলীগ কে এই জঘন্য ষড়যন্ত্রের বিরুদ্ধে রাজপথে প্রতিবাদ ও মানব বন্ধন করার জন্য।
এই জঘন্য মিথ্যার বিরুদ্ধে প্রতিটি উপজেলাতে প্রতিবাদের ঝড় উঠবে বলে আমি বিশ্বাস করি।

সভাপতি
বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ
কক্সবাজার জেলা শাখা।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর