Logo
নোটিশ :

আমাদের ভুবনে আপনাকে স্বগতম>>তথ্য নির্ভর সংবাদ পেতে  সাথে থাকুন  ধন্যবাদ।

উখিয়া রোহিঙ্গাসহ এ পর্যন্ত করোনা আক্রান্ত হয়েছে ২২৮ জন, মৃত্যু ৩ জনের

শহিদুল ইসলাম উখিয়া কন্ঠ।।  / ২৪০ বার
আপডেট সময় : সোমবার, ১৫ জুন, ২০২০

কক্সবাজারের উখিয়ায় রোহিঙ্গা এবং স্থানীয় জনগোষ্টির মাঝে দিনদিন বৃদ্ধি পাচ্ছে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা। ক্যাম্প কেন্দ্রিক এনজিও কর্মীদের অবাধ বিচরণের কারণে পরজীবি এই ভাইরাসের সংক্রমণ দ্রুত হচ্ছে বলে মনে করছেন স্থানীয়রা।এদিকে ঝুঁকিপূর্ণ এলাকা হিসেবে করোনা সংক্রমণ রোধে ৬ জুন থেকে ১৪ দিনের জন্য উখিয়া উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে তিন ইউনিয়নের কয়েকটি ওয়ার্ডকে রেড জোন ঘোষনা করে গণবিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়।বিজ্ঞপ্তি অনুযায়ী শুধুমাত্র ফার্মেসী ছাড়া সব ধরণের দোকান ও ব্যবসা-বাণিজ্য বন্ধ রাখা হচ্ছে। সপ্তাহে সোমবার ও বৃহস্পতিবার দুইদিন মাত্র নিত্যপণ্যের চাহিদা পূরণে হাটবাজার বসে। রেডজোন ঘোষণার পর থেকে সব ধরণের যানবাহন চলাচল বন্ধ রয়েছে।রেডজোন আওতাভুক্ত কুতুপালং বাজার ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি হেলাল উদ্দীন বলেন, রোহিঙ্গা ক্যাম্প অধ্যুষিত কুতুপালং বাজার এলাকায় লকডাউন চলছে। প্রতিদিন স্বেচ্ছাসেবকদের নিয়ে পাহারা দিচ্ছি।এ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে উখিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য ও প.প. কর্মকর্তা রঞ্জন বড়ুয়া রাজন বলেন, উখিয়ায় এ পর্যন্ত ২২৮ জন করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে । তৎমধ্যে ৫৩জন রোহিঙ্গা নাগরিক। দুইজন রোহিঙ্গাসহ ৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। অনেক করোনায় আক্রান্ত রোগী সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরে গেছেন।তিনি এও জানান, উখিয়ায় প্রতিদিন নমুনা সংগ্রহ করা হচ্ছে। তবে রিপোর্ট পেতে অনেক সময় ৮ থেকে ১০ দিন সময় লেগে যায়৷ কারণ, কক্সবাজারের ৮ উপজেলা এবং পাশ্ববর্তী পার্বত্য বান্দরবান জেলাসহ বেশ কয়েকটি উপজেলার নমুনা পরীক্ষা করা হয় কমেকের একমাত্র পিসিআর ল্যাবে।এ বিষয়ে উখিয়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো: নিকারুজ্জামান চৌধুরী বলেন, সাধারণ মানুষের মাঝে সচেতনতা বৃদ্ধিসহ রেডজোন কার্যকর করতে নিয়মিত অভিযান অব্যাহত রয়েছে। একই সাথে লকডাউনকালীন সময়ে সরকার এবং এনজিওর পক্ষ থেকে অসহায় কর্মহীনদেরকে নগদ অর্থ এবং সহায়তা সামগ্রী বিতরণও অব্যাহত রয়েছে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর